Skip to main content

এক দশকে উন্নয়ন বাজেট বেড়েছে প্রায় ৬ গুণ

হ্যাপি আক্তার : গেল ১০ বছরে বাজেট ৪ গুণ বাড়লেও উন্নয়ন বাজেটের আকার বেড়েছে প্রায় ৬ গুণ। ভৌত অবকাঠামো থেকে শুরু করে আর্থ সামাজিক উন্নয়নে সরকার বড় অঙ্কের টাকা খরচ করেছে। সাধারণ মানুষের ভাগ্য উন্নয়নে ভূমিকা রেখেছে। বিশ্লেষকরা বলছেন, শুধু প্রজেক্ট বাড়ালেই চলবে না। দক্ষতা বৃদ্ধির জন্য নানা ধরনের সুযোগ সুবিধা বাড়াতে হবে। তার সাথে ২০৩০ সালের মধ্যে দরিদ্রমুক্ত বাংলাদেশ গড়তে চলমান উন্নয়নকাজ শেষ করতে হবে নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই। পরিসংখ্যানে দেখা যায়, গেল ১০ বছরে ধারাবাহিক ভাবে বেড়েছে, উন্নয়ন বাজেটের আকার। ২০০৯-১০ অর্থবছরে প্রস্তাবিত উন্নয়ন বাজেট ৩১ হাজার ৬৩৯ কোটি টাকা। যা চলতি অর্থবছরে দাড়িয়েছে প্রায় ১ লাখ ৮০ হাজার কোটি টাকায়। বড় অক্সেক্ষর এ অর্থে নির্মাণ হচ্ছে পদ্মাসেতু, ঢাকা এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে, মেট্রোরেলসহ বেশ কয়েকটি মেগা প্রকল্প। বিশ্লেষকরা মনে করছেন, চলমান প্রকল্পগুলো শেষ হলে, সহসাই বদলে যাবে আজকের বাংলাদেশ। তবে প্রকল্পগুলোর গুণগতমান এবং দ্রুত বাস্তবায়ন নিয়ে সানেমর নির্বাহী পরিচালক ড. সেলিম রায়হান বলেন, ‘গত ১০ বছরে আমাদের বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচির পরিধি ও আকার অনেক বেড়েছে। তবে একটা বছরে যে সময়ে যতটুকু উন্নয়ন পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করা প্রয়োজন আমরা তার থেকে পিছিয়ে থাকি। ফলে অর্থ বছরের শেষ দিকে একটা তাড়াহুড়া দেখা যায়। সুতরাং আমাদের সামনের দিনগুলোতে এটা মাথায় রাখতে হবে যে, শুধু প্রজেক্ট বাড়ালেই চলবে না। দক্ষতা বৃদ্ধির জন্য নানা ধরনের সুযোগ সুবিধা বাড়াতে হবে।’ তবে চলমান বড় প্রকল্পগুলোতে কাক্সিক্ষতমাত্রায় সুবিধা পেতে হলে প্রকল্পের গুণগতমান ঠিক রেখে নির্ধারিত সময়ে তা শেষ করার বিষয়টি গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করেন, বিশ্বব্যাংক ঢাকা কার্যালয়ের প্রধান অর্থনীতিবিদ ড. জাহিদ হোসেন। স্বনির্ভর বাংলাদেশ গড়তে গেল ১ দশকে উন্নয়ন বাজেটে সরকার ব্যয় করেছে প্রায় সাড়ে ৮ লাখ কোটি টাকা। আর একই সময়ে বাংলাদেশের জিডিপির আকার বেড়েছে প্রায় সাড়ে ৪ গুণ। সূত্র : ডিবিসি নিউজ

অন্যান্য সংবাদ