প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কৃত্তিম বুদ্ধিমত্তায় বিশ্ব নেতৃত্বদানের পরিকল্পনা ঘোষণা জার্মান সরকারের

নূর মাজিদ : এক সময় কৃত্তিম বুদ্ধিমত্তাস¤পন্ন প্রযুক্তির বিকাশে অগ্রপথিকের ভূমিকা পালন করলেও বর্তমানে সেই স্থানে প্রতিযোগিতার সম্মুখীন জার্মানি। এখন দেশটির সামনে আবারো এইখাতে শীর্ষস্থান অধিকারের চ্যালেঞ্জ তৈরি হয়েছে। চীন, যুক্তরাষ্ট্র এবং জাপানের প্রযুক্তিখাতের প্রতিযোগীদের ছুঁড়ে দেয়া এই চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করে পুনরায় জার্মানিকে বিশ্বের শীর্ষ কৃত্তিম বুদ্ধিমত্তা নির্মাণকারী দেশের স্থানে নিতে চায় জার্মান সরকার। এই লক্ষ্যে দেশটির চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মার্কেলের সরকার পাঁচদফা পরিকল্পনা ঘোষণা করেছেন। এই লক্ষ্যে এক দুইদিন ব্যাপী কেবিনেট মিটিং শেষে গত বৃহ¯পতিবার চ্যান্সেলর মার্কেল প্রায় ৩ বিলিয়ন ইউরোর এক সরকারি তহবিল ঘোষণা করেছেন। কৃত্তিম বুদ্ধিমত্তার বিকাশে নিয়োজিত জার্মান সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে এই তহবিল থেকে অর্থ-সহায়তা দেয়া হবে। এছাড়াও দেশটির বেসরকারি বিনিয়োগকারীদের বিনিয়োগের পর এই তহবিলের আকার দ্বিগুণ হবে বলেই ধারণা জার্মান প্রশাসনের।

এই তহবিল গঠনের ঘোষণার সময় অ্যাঙ্গেলা মার্কেল বলেন, জার্মানিকে এআই- আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স তৈরিতে পুনরায় বিশ্বের কেন্দ্রে পরিণত করতে হবে। তবে এইখাতে বিশ্বের অন্যান্য দেশ এখন এগিয়ে রয়েছে বলেই জানান তিনি। বিশেষ করে, আগামী পাঁচ বছরে ফ্রান্স কৃত্তিম বুদ্ধিমত্তার বিকাশে ১৫০ কোটি বিনিয়োগ করবে। অন্যদিকে চীন ইতোমধ্যেই এই খাতের বিকাশে ২০৩০ সাল নাগাদ ১৫ হাজার কোটি ডলার বিনিয়োগের পরিকল্পনা করছে। যার তুলনায় জার্মান তহবিল অপ্রতুল বলেই মনে করছেন প্রযুক্তি বিশারদগণ।

এদিকে গালফ নিউজ প্রকাশিত অপর এক সংবাদের বরাত দিয়ে বলা হয়, কৃত্তিম বুদ্ধিমত্তাকে ব্যবহার করে নিজ নাগরিকদের ওপর নজরদারি বৃদ্ধি করছে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সরকার। এই তালিকায় চীন ও যুক্তরাষ্ট্র শীর্ষস্থানে রয়েছে। বিশেষ করে, নাগরিকদের রাজনৈতিক ভিন্নমত, সামাজিক চিন্তা দমন এবং আচরণ পরিবর্তনে অব্যাহতভাবে কৃত্তিম বুদ্ধিমত্তার আশ্রয় নেয়া হচ্ছে। ডয়েচে ভেলে, গালফ নিউজ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ