প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

পল্টনে জনতার ঢল দেখে নড়েচড়ে বসলো সরকার : সাখাওয়াত হোসেন

সাজিয়া আক্তার : ধানের শীষের সম্পাদক ডা. সাখাওয়াত হোসেন সায়ন্থ বলেছেন, নয়াপল্টন বিএনপি কার্যালয়ের সামনে এতো লোকের ঢল দেখে সরকার নড়েচড়ে বসলো। কারণ আওয়ামী লীগের মনে হলো, বিএনপিকে চাপে রাখার পরেও এতো লোকের ঢল?

যমুনা টেলিভিশনের রাজনীতি বিষয়ক টকশোতে তিনি আরো বলেন, এ অবস্থা দেখে নির্বাচন কমিশন পুলিশকে চিঠি দিয়ে বললো, আপনারা ব্যবস্থা নেন, এখানে আচরণবিধি লঙ্ঘন হচ্ছে। পরের দিন সকাল থেকে পুলিশ তৎপরতা শুরু করলো। মির্জা আব্বাসের নেতৃত্বে মিছিল আসলো যখন, তখন সেই মিছিলের উপর গাড়ি তুলে দেওয়া হলো, এতে কিছু লোকজন আহত হয়, যার কারণে জনগণ উত্তেজিত হয়। যখন এই পরিস্থিতি তৈরি হয় তখন বিএনপির নেতাকর্মীরা উত্তেজিত। এই অবস্থায় তাদের মধ্যে যদি ৫/১০ জন ঢুকে সহিংসতা ঘটায় সে সময় তাদের আলাদাভাবে চিহ্নিত করে ধরবে, সেই পরিস্থিতি তখন ছিলো না। পুলিশের কাজ যথাযথ তদন্ত করে এটা বের করা।

ডা. সাখাওয়াত হোসেন সায়ন্থ বলেন, যদি পুলিশকে নির্বাচন কমিশন এই তৎপরতার নির্দেশ না দিতো তাহলে এই পরিস্থিতি তৈরি হতো না। কেননা আগের দিন পর্যন্ত এতো লোক থাকা সত্বেও কোনো ধাক্কাধাক্কি পর্যন্ত হয়নি। পুলিশ উস্কানি দিয়ে জনগণকে বাধ্য করেছে উত্তেজিত হতে। উস্কানির সুযোগ নিয়ে এ ঘটনা কারা ঘটিয়েছে তারা তদন্ত করে বের করুক। এটা যদি বিএনপির কোনো নেতা কর্মী করে থাকে এবং চিহ্নিত হয়, তাহলে নিশ্চয় তাদের বিচার হওয়া উচিত। কারণ পুলিশের গাড়িতে আগুন দিয়েছে এটা কোনোভাবেই কাম্য নয়।

ধানের শীষের সম্পাাদক আরো বলেন, বিএনপি এবং তাদের জোট দীর্ঘদিন রাজনৈতিক নিপীড়নের মধ্যে আছে। তারা তাদের দলীয় প্রধান বেগম খালেদা জিয়াকে জেলে নেয়াসহ রাজনীতির অপতৎপরতা চালানোর পরো বিএনপি কোনো রকম সহিংস কর্মসূচি দেয়নি। তারা একরকম নির্বাচনমুখী হয়ে বিভিন্ন দাবিদাওয়া তুলে মাটি কামড়ে পরে আছে। কাজেই বিএনপি কেনো যাবে সহিংসতার মধ্যে?

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ