Skip to main content

হৃদয়কে প্রশান্ত করে সহনশীলতা

আমিন মুনশি : আল্লাহ আমাদের সকলের সাথেই রয়েছেন। তবে যারা ধৈর্যশীল তাদের সাথে আল্লাহর রয়েছে এক নিবিড় সখ্যতা। ইরশাদ হয়েছে, ‘এবং ধৈর্যশীল হও ও অধ্যবস্যায় কর, নিশ্চয় আল্লাহর ধৈর্য্যশীলদের সাথেই আছেন।’ (সূরা আনফাল :৪৬) সত্য বলতে কি, মানুষের সাথে রূঢ় আচরণ করা যতটা সহজ ধৈর্য্য ধারণ করা ততটাই কঠিন। হাদিস শরিফে এসেছে, আর যে সবর অবলম্বন করে আল্লাহ তাকে রহমতের চাদরে আবৃত করেন, এবং যে তার যা আছে তাই নিয়ে সন্তুষ্ট থাকে আল্লাহ তাকে স্বনির্ভর করে দেন। ধৈর্য্যের চেয়ে মহামূল্যবান কোন পুরস্কার নেই। (বুখারী) ধৈর্যের ফলাফল কত মিষ্ট হতে পারে তার পরিমাপ করা সম্ভব নয়। ‘যারা সবরকারী, তারাই তাদের পুরস্কার পায় অগণিত।’ (সূরা যুমার:১০) যখন কেউ আমাদের আঘাত করে এবং আমরা নিজেদের দিকে তাকাই, দেখতে পাই আমাদের অন্তরগুলো ব্যথাতুর হয়ে উঠে, আমরা রাগান্বিত হই। এই অবস্থাটা আমাদের জন্য সর্বাপেক্ষা কঠিন ও সহানুভূতি শিক্ষার অন্যতম উপায়। এভাবেই আমরা নিজের মাধ্যমে অন্যকে বুঝতে পারি। আমাদের অন্তরগুলো যখন বেদনাহত, আমরা তখন অনুভব করি একই অবস্থানে অন্যের অবস্থা কি হতে পারে। হতে পারে সময়ের চাকা আপনার দিকেও ঘুরতে পারে কিংবা এমনও হতে পারে আপনি নিজের অজান্তেই মানুষকে এমনভাবেই কষ্ট দিয়েছেন। অন্যের কষ্টগুলো অনুভবের চেষ্টা করুন, তারাও যখন আপনার দ্বারা কখনো আঘাত পেয়েছিল ঠিক এমনি ছিল তাদের অনুভুতিগুলো। যদি এভাবে ভাবতে পারেন তবে নতুন এক শিক্ষা লাভ করতে পারবেন যা পরবর্তিতে আপনার ব্যথাতুর হৃদয়কে শান্ত করতে কাজে দিবে।