প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী জাহিদ মালেকের বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ

ডেস্ক রিপোর্ট : স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী জাহিদ মালেকের বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী জাহিদ মালেকের বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ

বিগত ২০১৮ সালের ৪ নভেম্বর দুর্নীতি দমন কমিশনে মানিকগঞ্জ-৩ এর সংসদ সদস্য প্রতিমন্ত্রী জাহিদ মালেকের বিরুদ্ধে ২০১৬-২০১৭ এর অর্থবছরের সরকারি মেডিকেল কলেজ প্রতিষ্ঠা বাবদ ৬৩ কোটি টাকা অর্থ আত্মসাৎ এর অভিযোগে দুর্নীতি দমন কমিশনে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, বর্তমানে স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী মানিকগঞ্জ সদর থানাধীন ২০১৬-২০১৭ অর্থ বছরের সরকারি মেডিকেল কলেজ প্রতিষ্ঠা বাবদ জমি অধিগ্রহণে অনিয়ম ও নির্মাণসহ আনুমানিক প্রায় ৬৩ কোটি টাকা একে অপরের যোগসাজসে আত্মসাৎ করেন। তার বিরুদ্ধে গত জানুয়ারী-ফেব্রুয়ারি ২০১৬-২০১৭ অর্থ বছরের মানিকগঞ্জ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের কাজ বাবদ ১৩ কোটি টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগ রয়েছে।

শেখ হাসিনা জাতীয় ক্যান্সার হাসপাতাল রাজধানী মহাখালীতে নির্মাণ করার জন্য চায়না রেলওয়ে কনস্ট্রাকশন কোম্পানী সি আর সি এর সাথে সমঝোতা করে হাতিয়ে নেন প্রায় ১০ কোটি টাকা। ২০০৯-২০১০ অর্থ বছরের বাজেটে প্রায় ৪ কোটি টাকা হাতিয়ে নেন এই প্রতিমন্ত্রী। আপন ফুফাতো ভাই ই¯্রাফিলকে সঙ্গে নিয়ে মানিকগঞ্জ জেলা শ্রমিক লীগের অফিস দখল করে নেন তিনি। মানিকগঞ্জ বাস টার্মিনাল উন্নয়ন বরাদ্দ থেকে প্রায় ৬ কোটি টাকা ভাইয়ের যোগসাজসে হাতিয়ে নেন। এসব অপকর্মের পর স্থানীয় জনসাধারণ তার প্রতি তীব্রক্ষোভ পোষণ করেন।

খোজ নিয়ে জানা যায় এ বিষয়ের পৃথক ৩টি অভিযোগ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ও দুর্নীতি দমন কমিশনে প্রেরণ করেছেন স্থানীয় এক জনৈক ব্যাক্তি। বিষয়টি বর্তমানে দুর্নীতি দমন কমিশনে তদন্ততাধীন আছে বলে জানা যায়।

বিতর্কিত এই স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রীকে স্থানীয় এলাকার ভোটারগণ তার প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ করেন এবং সামনের ভোট উৎসবে নতুন মুখ চাচ্ছেন এই আসনটি আপামর জনসাধারণ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ