প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

‘বিএনপি বিশ্বাসযোগ্য নির্বাচন চায়’

সাজিয়া আক্তার : বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন বলেছেন, আমার ভোট আমি দেবো, তোমার ভোটও আমি দেবো, এরকম নির্বাচন বিএনপি চায় না। বিএনপি একটি ক্রেডিবল নির্বাচন চায়। কাজেই বিএনপি কোনো রকম উস্কানিমূলক কাজে পা দিবে না, যাতে করে নির্বাচন ভুল হতে পারে।

যমুনা টেলিভিশনের রাজনীতি বিষয়ক টকশোতে তিনি আরো বলেন, ইচ্ছাকৃতভাবে কেউ পুলিশের উপর হামলা করে না। যতগুলো হামলা হয়েছে, সবগুলো আইনশৃঙ্খলা বাহিনী করেছে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কাজ হলো, ধৈর্য ধারণ করে কাজ করা। তাদের কাজ পরিস্থিতি সামলানোর পরিবর্তে বিঘœ সৃষ্টি করা না। সাধারণ মানুষ পুলিশের উপর হামলা করেনি। পুলিশেই সাধারণ মানুষের উপর লাঠিচার্জ করে পরিস্থিতি উত্তপ্ত করেছে, যার ফলে বিএনপির অসংখ্য জনগণ জড়ো হয়েছিলো।

জয়নুল আবেদীন বলেন, গত কয়েকদিন ধরে সুশৃঙ্খলভাবে অসংখ্য লোক মনোনয়নপত্র কিনতে এসেছে। মানুষের মধ্যে আশার সঞ্চার হয়েছে, বিগত দিনে যে ভোটের অধিকার হারিয়েছে, সেটা হয়তো তারা এবার ফিরে পাবে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে এখন ধৈর্যের পরিচয় দিতে হবে। কারণ তারাও এদেশের মানুষ, তাই তাদেরও মানুষের কথা বুঝতে হবে। মানুষ এখন ভোট দিতে চায়। এখন জনগণের মধ্যে কোনো রকম উস্কানি দিয়ে বিভ্রানির সৃষ্টি করা উচিত নয়। সরকারি উচ্চ মহলের দায়িত্বপ্রাপ্তরা যদি প্রকৃতপক্ষে গণতন্ত্র চায়, তাহলে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে উস্কিয়ে দিবে না। জনগণের টাকা দিয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে বেতন দেয়া হয়। তাই জনগণের প্রতি তাদের সদয় হতে হবে।

বিএনপির এই ভাইস চেয়ারম্যান আরো বলেছেন, বিএনপি নির্বাচন চায়। বিএনপি ক্ষমতায় নেই। যারা ক্ষমতায় আছেন, তারা ক্ষমতা দীর্ঘায়ীত করার জন্য নির্বাচনকে বিলম্বিত করতে চাইছে। নির্বাচন না হোক এটা তারা চাইতে পারে। বিএনপি চায় দেশে একটা সুষ্ঠু নির্বাচন হোক এবং এই নির্বাচনে দেশের সকল মানুষ ভোটের অধিকার প্রয়োগ করুক। বিএনপি সব সময় একটি গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়া বিশ্বাস করে। কাজেই কেউ যেনো এই অবস্থার মধ্যে কোনোভাবেই এমন কোনো কাজ না করে যাতে করে নির্বাচনের ক্ষতি হয়।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ