প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

থেরেসার প্রতি অনস্থা উত্থাপন
ব্রিটিশ মন্ত্রীসভায় ব্রেক্সিট চুক্তি অনুমোদনের পর দুই মন্ত্রীর পদত্যাগ

আসিফুজ্জামান পৃথিল : ইউরোপিয় ইউনিয়নের সঙ্গে ব্রেক্সিট পরবর্তী চুক্তির খসড়া অনুমোদনের পর টালমাটাল হয়ে পড়েছে প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে’র মন্ত্রীসভা। পদত্যাগ করেছেন ব্রেক্স্টি বিষয়ক মন্ত্রী সহ দুই মন্ত্রী এদিকে হাউজ অব কমন্সে আনা হয়েছে মে’র বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব। প্রস্তাবটি দিয়েছেন মে’র নিজের দলেরই এমপি রেস-মগ।
মন্ত্রীসভায় খসড়া অনুমোদনের পর মে জানিয়েছেন, কেবিনেটে দীর্ঘ ৫ঘণ্টার বিতর্ক শেষে এতে অনুমোদন দেওয়া হয়। এর মধ্যদিয়ে, একটি সফল ব্রেক্সিট চুক্তির দিকে অনেকখানি এগিয়ে গেলো যুক্তরাজ্য। তাই আশা করা যায়, ইইউ থেকে ব্রিটেনের বেরিয়ে যাওয়া সফলভাবেই সম্পন্ন হতে চলেছে।

অনুমোদনের পরপরই পদত্যাগ করেছেন মে’র মন্ত্রীসভার দুই গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রী। প্রথমে পদত্যাগ করেন ব্রেক্সিট বিষয়ক মন্ত্রী ডমিনিক রাব। এরপর পদত্যাগ করেন, কর্ম ও পেনসনমন্ত্রী এস্টার ম্যাকভে। পদত্যাগের সময় রাব জানিয়েছেন, ব্রেক্সিট চুক্তির ব্যাপারে তিনি নিজের বিবেকের সমর্থন পাচ্ছেন না। এ কারণে তিনি পদত্যাগ করছেন। গত জুলাইতে সাবেক গৃহায়ণ ও স্থানীয় সরকারবিষয়ক মন্ত্রী ডমিনিক রাবকে ব্রেক্সিটবিষয়ক মন্ত্রীর দায়িত্ব দেওয়া হয়। ডেভিড ডেভিসের পদত্যাগের পর এই দায়িত্ব পান তিনি।

এদিকে অনাস্থা প্রস্তাব দাখিল করে রেস-মগ পার্লামেন্ট থেকে বের হওয়ার পর তাকে ঘিরে ধরেন সংবাদকর্মীরা। এটি কোন অভ্যুত্থান কিনা সে প্রশ্নের জবাবে মগ জানান এটি স্বচ্ছ রাজনৈতিক প্রক্রিয়া। অভ্যুত্থান তো পরের কথা তার জোর করে নেতা হবারও কোন ইচ্ছে নেই। তিনি মনে করেন, তারই দলের প্রধানমন্ত্রী নিজ দ্বায়িত্ব পালনে অক্ষম। তাই তিনি অনাস্থা জানিয়েছেন। মগ মনে করেন যুক্তরাজ্যের ব্রাসেলস-এ গিয়ে ইউরোপিয় ইউনিয়ন নেতাদের বলা উচিৎ, ‘যুক্তরাজ্য কোন চুক্তি ছাড়াই ইউরোপ ত্যাগ করবে। এবং সকল বাণিজ্য হবে বিশ^ বাণিজ্য সংস্থার নিয়ম অনুযায়ীই। গার্ডিয়ান, বিবিসি, সিএনএন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ