প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

নির্বাচনে বিএনপি সঠিকভাবে অংশ না নিলে এটাই হবে তাদের রাজনীতির শেষ কথা : ওয়ার্কার্স পার্টি

রফিক আহমেদ : বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির পলিটব্যুরোর তরফ থেকে বলা হয়েছে, এবারের নির্বাচনে বিএনপি যদি সঠিকভবে অংশ না নেয়- তাহলে তাদের জন্যে এটাই হবে তাদের রাজনীতির শেষ কথা। বিএনপির এখন বোধোদয় হবে এবং দলটি অগ্নিসন্ত্রাস এবং হত্যা হামলা ঘটনা থেকে বিরত হয়ে নির্বাচনে শান্তিপূর্ণভাবে অংশ নেবে এবং নির্বাচন থেকে পালিয়ে যাওয়ার কোন প্রচেষ্টা তারা নেবে না। বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে পার্টির পলিটব্যুরোর তরফ থেকে এ কথা বলা হয়।

ওয়ার্কার্স পার্টির পলিটব্যুরো থেকে বলা হয়, বুধবার বিএনপি কার্যালয়ে মনোনায়ন প্রদানকে কেন্দ্র করে পুলিশের উপরে বর্বর আক্রমণ, গাড়ি পোড়ানো ও ধংসাত্মক কার্যকলাপের নিন্দা করেছে। এটা বিএনপির সেই পুরনো অগ্নিসন্ত্রাসেরই আরেক রূপ জনগণের সামনে প্রকাশ হয়ে গেলো। এর মধ্যে বোঝা যায় যে বাংলায় একটা প্রবাদ আছে ‘কয়লা ধুলে না যায় ময়লা’। বিএনপির বেলায় সেটি বিশেষভাবে প্রযোজ্য। বলা হয় নির্বাচনকে বানচাল করার, নির্বাচনী ব্যবস্থাকে অস্থিতিশীল করা এবং একটা অশান্ত পরিবেশ তৈরী করার চেষ্টা। ওরা চেয়েছিলো পিছনের দরজা দিয়ে একটি অশুভ শক্তিকে ক্ষমতায় বসানো। সেটা ব্যর্থ হয়ে তারা এখন নির্বাচনকে কেন্দ্র করে নির্বাচনে যে সাধারণ একটি প্রকাশ্যে গতিবিধির সুযোগ তারা পেয়েছে এবং এখানে সভাসমাবেশ মিছিল করতে পারছে সেটাকে কাজে লাগিয়ে আবার সেই পুরোন অগ্নি সন্ত্রাসে তারা ফিরে গেছে। পার্টির পলিটব্যুরোর বিবৃতিতে বলা হয়, ২০১৪ নির্বাচনের আগে তিন মাস ধরে তারা অগ্নিসন্ত্রাস করেছিল এবং একই সঙ্গে তারা মানুষ হত্যায় মেতে উঠেছিল। এটা খুবই স্পষ্ট বুধবার তাদের মানুষ হত্যার পরিকল্পনা ছিলো। হেলমেট পরা, হাতে লাঠি নিয়ে হামলা করা, গাড়ী পোড়ানো এই যে পরিস্থিতির ছবি গুলো টেলিভিশনে ফুটেজে দেখা গেছে এটিই পূর্ব পরিকল্পনার প্রমাণ দেয়। একটি কথাই বিএনপি তরফ থেকে প্রায় সময় বলা হয় যে, তাদের নেতৃবৃন্দ যখন কোন ঘটনায় জড়িত নয় তবুও তাদেরকে মামলায় জড়ানো হয়। পলিটব্যুরোর বিবৃতিতে আরও বলা হয়, বুধবার দেখা যায় যে বিএনপির স্থায়ী কমিটির একজন নেতার নেতৃত্বে এই মিছিল এসেছিলো এবং সেখান থেকে এর সুত্রপাত হয়। এর মধ্যে অভ্যন্তরীন বিরোধের একটি বিষয় সামনে চলে আসে। এটা স্পষ্ট যে পুলিশের উপর আক্রমন এটা তাদের পূর্ব পরিকল্পিত ছিলো। পুলিশ এখানে চরম ধৈর্য্য দেখিয়েছে আমরা পুলিশের এই ধৈর্য্যের প্রশংসা করি এবং আমরা মনে করি নির্বাচনকে শান্তিপূর্ণ রাখতে শুধু মাত্র বিএনপিকে নয় সব ক্ষেত্রে পুলিশ স্বাভাবিক ভাবে আইন-শৃংঙ্খলা বজায় রাখতে নিরপেক্ষ ভূমিকা পালন করবে।

সম্পাদনা- মাহবুব আলম

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ