প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মার্ক‌া ব্যবসায়ী‌দের খপ্প‌রে মৌলভীবাজার!

মুন‌জের অাহমদ চৌধুরী : নির্বাচন‌কে সাম‌নে মৌলভীবাজার জেলার রাজনী‌তির চিত্রটা দ্রুতই বড্ড ক্রীড়নক হ‌য়ে উ‌ঠে‌ছে। অন্তত নেতা নামধারী‌দের বা‌হ্যিক চরিত্র ক্ষ‌ণে ক্ষ‌ণে বদ‌লের খেলা অা‌গে এতটা উলঙ্গতায় অার নগ্নভা‌বে নিকট অতী‌তে দে‌খে‌ননি এ জেলার মানুষ।

কুলাউড়া অর্থাৎ, মৌলভীবাজার-২ অাসন‌টি দে‌শের রাজনী‌তি স‌চেতন জনতা বহুল এক‌টি অাসন। এ অাস‌নে দ‌লের দু‌র্দি‌নে নি‌জের দল ত্যাগী দুই অাদর্শ ব্যবসায়ীর অাদ‌র্শিক লাম্প‌ট্যের জমজমাট খেলা শুরু হ‌য়ে‌ছে। পরশু একজন সি‌লে‌টে বিএন‌পির নেতা হয়ে ড. কামাল হো‌সে‌নের ম‌ঞ্চে কোন ম‌তে ঝু‌লে দা‌ঁড়ি‌য়ে ছ‌বি তু‌লে‌ছেন। অাজ তি‌নি ধা‌নে‌র শী‌ষের ম‌নোনয়‌নের নিশ্চয়তা না পে‌য়ে বি. চৌধুরীর কো‌লে উ‌ঠে নৌকার মা‌ঝি হ‌তে ম‌রিয়া।

কারণ, দে‌শে যত ধর‌নের নির্বাচন হয় তার তা‌তে অবশ্যই প্র‌তিদ্ব‌ন্দিতা কর‌তে হয়।

অন্য‌দি‌কে, বঙ্গবন্ধুর অাওয়‌ামলীগের না‌মে, শেখ মু‌জি‌বের হুবুহু অনুকরণমুখী অাদর্শপুত্র সি‌লেট, কুলাউড়া সব খানে এখন নি‌জের মার্কা চান ধা‌নের শীষ। তারা ভু‌লে গে‌ছেন, মানু‌ষের চো‌খে বিশ্বা‌সের ভালবাসার অাসন‌টি নৈ‌তিকতা দি‌য়ে ধ‌রে রাখ‌তে হয়।

একজন যখন বঙ্গবন্ধুর পুত্র ছি‌লেন তখনকার সে ওয়ান ই‌লে‌ভে‌নে বঙ্গবন্ধু কন্যার বিপ‌দে সাড়া দেন‌নি। তখন কারাগার থে‌কে শেখ হা‌সিনা মানুষ পা‌ঠি‌য়ে সাড়া পাননি। তা‌দের জানবার বাকী অা‌ছে, দম্ভ, অহংকার অার ‘অা‌মি’র অা‌মি‌ত্বের রাজনী‌তির দিন ফু‌রি‌য়ে গে‌ছে।

পা‌শের অাস‌নে কিছু‌দিন অা‌গেও প্রধানমন্ত্র‌ী, অাওয়‌ামী লীগ সভা‌নেত্রী শেখ হা‌সিনার স‌ঙ্গে বি‌ভিন্ন গা‌ছে নি‌জের ছ‌বি ফেষ্টুন বা‌নি‌য়ে ঝুলা‌তেন একজন। তারও অা‌গে ছাত্রজীব‌নে তি‌নি ছি‌লেন ছাত্রসংস‌দে ইসলামী ছাত্র শি‌বি‌রের জিএস প্রার্থী।

নির্বাচন কর‌তে অার হার‌তে ক্লা‌ন্তি, লজ্জা কোনটাই নেই তার। ক্ষমতার কাং‌খিত চেয়া‌রের দেখা অা‌জো মে‌লে‌নি। এখন তি‌নি বেগম জিয়ার, তা‌রেক রহমা‌নের অাদ‌র্শের ‘খাস’ সৈ‌নিক। জেলার নেতারা যে যত‌দিন কেন্ত্রীয় থা‌কেন, তখন তার ঢাকার বাসায় নেতা ফ্রি থাক‌তে পা‌রেন।

অা‌রো বড় নেতা‌দের নি‌জের শি‌ল্পের ক্ষমতায় ‌পোষ মানাবার অদ্ভুত দক্ষতা এ শিল্পপ‌তির। বি‌ভিন্ন সামা‌জিক সংগঠ‌নের ভো‌টে সরকারী দ‌লের বয়‌সে ছোট কিন্তু ক্ষমতায় হাই‌ব্রিড মামা‌য় মাখামা‌খি মহর‌মে নির্বাচ‌ন ক‌রে গো-হারা হে‌রে‌ছেন।

কিন্তু, তার বর্তমান দল‌টির স্থানীয় পেশাদার রাজনী‌তি‌বিদ গু‌টিক‌য়েক স্থানীয় কিছু টাউ‌টের অায়-‌রোজগা‌রের অভাব। তা‌দের উ‌নি কর্জ দেন, তা‌দের সাদা-স‌ফেদ পাঞ্জাবীর প‌কে‌টে প্রায়ই ভালবাসার হাত‌টি ঢু‌কি‌য়ে দেন। ব্যাস অার কী লা‌গে? কিচ্ছু না।

যতটি কথা লেখা উপ‌রে, প্র‌ত্যেক‌টি কথার, ফেষ্টু‌নের ছ‌বি, দালালীর স্ক্রীনশট, বক্ত‌ব্যের ভি‌ডিও এলাকার মানু‌ষের ফেসবু‌কে অা‌ছে। কেউ কেউ তা অাবার ইনবক্স করা শুরু ক‌রে‌ছেন। কেননা, তাদেরও প্র‌তিপক্ষ‌কে অনলাই‌নে কামড়া‌তে হ‌বে। জিত‌তে হ‌বে ম‌নে‌ানয়ন য‌ু‌দ্ধে।

মাল’দার ‌নেতারা জেলার খুচরা, সকাল বিকাল বলয় অার তীর্থ বদলা‌নো নেতার কাছ থে‌কে পদ‌বি কি‌নে উপ‌জেলায় ফ্রি বি‌লি‌য়ে অানুগত্য কে‌নেন। ফেসবু‌কে মা‌সোহারা দি‌য়ে লোক রে‌খে নি‌জের ছ‌বি ছাপা-ছা‌পি ক‌রেন। ফেসবু‌কের কেনা লাই‌কের অাত্ম বিশ্বা‌সে ঘু‌মের ঔষধ খে‌য়ে এম‌পি হবার দিবাসপ্ন দে‌খেন।

এরকম মানুষগু‌লির ও এখন খা‌লি একটা মার্কা লা‌গে। এরপর যেভা‌বে হোক ভো‌টে পাশ করতে হ‌বে। এরপর এমন প্রানীরা সংস‌দে যা‌বে। তা‌দের হা‌তে নিরাপদ হ‌বে দেশ। সমৃদ্ধ হ‌বে অামার জনপদ!হায় রে দেশ, হায় রাজনী‌তি!

লেখ‌তে লেখ‌তে ব‌ড়ো অা‌ক্ষেপ হয়। বু‌কের ভেত‌রে কষ্ট হয়। এ যে অামারই দেশ, অামার জনপদ। অথচ অামা‌দের শৈশ‌বেও তো অা‌মা‌দের রাজনী‌তিকরা অা‌মা‌দের ভালবাসার নায়ক ছি‌লেন। কমলগ‌ঞ্জের প্রয়াত মোঃ ই‌লিয়াস এর ম‌তো নী‌তিবান রাজনী‌তিক এ জেলায় এম‌পি হ‌য়ে‌ছি‌লেন। বাস ড্রাইভার থে‌কে ৭০ এ এম‌পি হওয়‌া জুড়ীর মরহুম তৈমুস অালী সা‌হেব‌রা অামৃত্যু দল-অাদর্শ বদলান নি।

এ জেলার সন্তান প্রয়াত অর্থ ও প‌রিকল্পনা মন্ত্রী, জেলার উন্নয়‌নের রুপকার এম সাইফুর রহমান। সা‌বেক সমাজকল্যান মন্ত্রী বীর মু‌ক্তি‌যোদ্ধা মরহুম সৈয়দ মহসীন অালী। তারা তো নৈ‌তিকতা বেচেঁ দেন‌নি এম‌পি হবার হা‌টে।

অার কিছু লেখ‌তে পা‌রি না। কারন, কি-বো‌র্ডের, কল‌মেরও তো লজ্জা থা‌কে। তা‌দের সবার সা‌থে সামা‌জিক সম্পর্ক থাকবার দায় থা‌কে। সামা‌জিক জীব হ‌য়ে বাস করবার বৃত্ত থা‌কে। ক্ষমতায় গে‌লে দেখে নেবার হুম‌কি থা‌কে।

কাল‌কে যে বে‌চেঁ খেত ধানের শীষ, অাজ সে-ই কিন‌বে নৌকা। এম‌পি হ‌বেন তারা। জনগন তা‌দের কা‌ছে খুব বোকা।

তবু লিখ‌তে হয়। কাউ‌কে না কাউ‌কে স‌ত্যিটা অন্তত বলবার অপরাধ‌টি ক‌রে যে‌তে ‌তো হয়। না হ‌লে যে বি‌বে‌কের কা‌ছে বড্ড অপরাধী থে‌কে যে‌তে হয়। সূত্র: বিয়ানীবাজার বার্তা টোয়েন্টিফোর

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ