প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

আরো তিন সপ্তাহ নির্বাচন পেছাতে ইসিকে ঐক্যফ্রন্টের প্রস্তাব

সাইদ রিপন: আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন আরো তিন মাস পেছানোর দাবি জানিয়েছে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। ঐক্যফ্রন্টের দাবির বিষয়ে নির্বাচন কমিশন (ইসি) আশ্বাস দিয়েছে বলে জানিয়েছেন ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ড. কামাল হোসেন।

বুধবার বিকেলে ইসির সঙ্গে ঐক্যফ্রন্টের বৈঠক শেষে ড. কামাল সাংবাদিকদের এ কথা বলেন।

ড. কামাল বলেন, ইসি আমাদের সাহায্য সহযোগিতার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। তারা বলেছেন, নির্বাচন অবাধ-সুষ্ঠু হবে। তারা ধৈর্য ধরে আমাদের কথা শুনেছেন। আশা করি তারা সহযোগিতা দেবেন। বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে সংঘটিত সংঘর্ষের বিষয়ে তিনি বলেন, এটি সরকারি বাহিনীর উৎসাহী কাজ। নির্বাচন পেছানো হবে কি না, সে বিষয়ে কামাল হোসেন বলেন, ইসি বলেছে তারা বিষয়টি বিবেচনা করবে। অন্যদিকে ইসির বৈঠক নিয়ে বিস্তারিত কথা বলেন ঐক্যফ্রন্টের মুখপাত্র ও বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

মির্জা ফখরুল বলেন, নির্বাচন তিন সপ্তাহ পিছিয়ে দেয়ার দাবি জানিয়েছি। তারা (ইসি) বলেছেন, তারা এটা বিবেচনা করে দেখবেন। কমিশন আলোচনা করে এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেবেন। আমরা নির্বাচন একেবারেই ইভিএম ব্যবহার করা যাবে না বলে জানিয়েছিলাম। তারা বলেছেন, তারা সব কেন্দ্রে বা বড় পরিসরে ব্যবহারের কথা চিন্তা করছেন না। তারা শুধু সিটি কর্পোরেশনগুলোতে সীমিতসংখ্যক ইভিএম ব্যবহার করার চিন্তা করছেন। তারা এটাও বলেছেন, আমরা যদি তাদের বোঝাতে পারি ইভিএম পদ্ধতি পুরোপুরি নিরাপদ নয়, তাহলে তারা সেটাও বিবেচেনা করবেন। তাছাড় প্রতিটি কেন্দ্রে আমরা সেনাবাহিনী মোতায়েনের কথা বলেছিলাম। তারা বলেছেন, এটা আমরা ইতোমধ্যে চিন্তা করে স্ট্রাইকিং ফোর্স হিসেবে ব্যবহার করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। প্রতি কেন্দ্রে ব্যবহার করা যাবে কি না এ ব্যাপারে তারা বিবেচনা করবেন।

তিনি বলেন, বর্তমানে প্রধানমন্ত্রী গণভবনে থাকছেন। এ বিষয়ে আমরা ইসিকে বলেছি। জনপ্রশাসন ও পুলিশ প্রসাশনে রদবদল, হয়রানিমূলক ও গায়েবি মামলার প্রত্যাহার, কারাবন্দি নেতাকর্মীদের নিঃশর্ত মুক্তির ব্যাপারে ইসি তালিকা চেয়েছে বলে দাবি করেন ফখরুল। এখন পুলিশ যাতে রাজনৈতিকভাবে কাউকে গ্রেফতার না করে সে বিষয়ে ইসির নির্দেশনা চেয়েছেন তিনি। সম্পাদনা: মাহবুব আলম

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ