প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কোনভাবেই নির্বাচন পেছানো যাবে না: এইচ টি ইমাম

সাইদ রিপন: আওয়ামী লীগের নির্বাচন পরিচালনা বোর্ডের কো-চেয়ারম্যান ও প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিকবিষয়ক উপদেষ্টা এইচ টি ইমাম বলেছেন, কোনভাবেই সংসদ নির্বাচন পেছানো যাবে না। আমরা নির্বাচন কমিশনকে (ইসি) পরিষ্কার বলেছি ৩০ তারিখ পর্যন্ত নির্বাচন পিছিয়েছেন। আর নয়। একদিনও নয়, একঘণ্টাও নয়।

বুধবার সন্ধ্যায় ইসির সঙ্গে আওয়ামী লীগের একটি প্রতিনিধি দলের বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন এইচ টি ইমাম। এর আগে ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের একটি প্রতিনিধি দল ইসির সঙ্গে বৈঠক করে। নির্বাচন তিন সপ্তাহ পেছানোর দাবি করে ঐক্যফ্রন্ট। ঐক্যফ্রন্টে দাবি হাস্যকর উল্লেখ করে এইচ টি ইমাম বলেন, পৃথিবীর এমন কোনো দেশ নেই, যারা বিদেশিদের সুযোগ-সুবিধার কথা ভেবে নির্বাচনের দিনক্ষণ ঠিক করে। আমরা একটি স্বাধীন সার্বভৌম দেশ। আমরা আমাদের সুযোগ-সুবিধা দেখব। আমরা কয়েকদিন ধরে লক্ষ্য করছি নির্বাচন পেছানোর জন্য কয়েকটি মহল বিভিন্নভাবে কথা বলছেন। কিন্তু নির্বাচন পেছালে কী অসুবিধা হবে তা ভেবে দেখছেন না তারা। এর আগেও ২৯ ডিসেম্বর নির্বাচন হয়েছে, সেসময় কিন্তু বড় দিন কিংবা ইংরেজি নতুন বছর কোনো সমস্যা হয়নি। ৩০ ডিসেম্বর নির্বাচন হলে কেউ যে আসবেন না তেমন কোনো বিষয় নয়।

পরে ইসি সচিব সাংবাদিকদের বলেন, উৎসবমুখর পরিবেশে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহের বিষয়টি স্বাভাবিক, এটাকে আচরণবিধি লঙ্ঘন বলা যাবে না। আওয়ামী লীগের ক্ষেত্রেও উৎসবমুখর পরিবেশে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহের চিত্র আমরা দেখেছি। নয়াপল্টনের ঘটনায় ইসিকে ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানিয়েছে আওয়ামী লীগ। আচরণবিধি লঙ্ঘন না হলে ইসি কী ধরনের ব্যবস্থা নেবে এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক উপদেষ্টা এইচটি ইমামের নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দল আমাদের সঙ্গে বৈঠক করেছে। তারা ব্যবস্থা নেওয়া দাবি জানিয়েছে। আমরা পুলিশের কাছে জানতে চাইবো কেন এই সহিংসতা হয়েছে। রাষ্ট্রীয় প্রটোকল ব্যবহার করে প্রধানমন্ত্রী তার সরকারি বাসভবন গণভবনে মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার নিচ্ছেন- এটা আচরণবিধি লঙ্ঘন কি না জানতে চাইলে সচিব বলেন, আমরা দেখব এটা আচরণবিধি লঙ্ঘন কি না।

আরেক প্রশ্নের জবাবে হেলালুদ্দীন আহমদ বলেন, আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম বিতরণের পরে এবং বিএনপির মনোনয়ন ফরম বিতরণ শুরু হলে শোডাউন না করার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে বিষয়টা এমন না। দলীয় কার্যালয়ে নেতা-কর্মীরা উৎসবমুখর পরিবেশে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করবেন এটা স্বাভাবিক বিষয়। আমরা চিঠি দিয়েছি যেন ভবিষ্যতে তারা যখন রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে মনোনয়ন ফরম জমা দেবেন- সেখানে যেন বড় ধরনের শোডাউন না হয়।

সম্পাদনা: হুমায়ুন কবির খোকন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ