প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কুলখানীর মাংসে ‘আল্লাহু ও মোহাম্মদ’ নাম!

সোহেল রানা, মৌলভীবাজার প্রতিনিধি: মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে কুলখানীর শিরনী রান্না করার সময় ‘আল্লাহু ও মোহাম্মদ’ আরবী অক্ষরে লেখা দুই টুকরা মাংস ভেসে উঠে।

আজ বুধবার সকালে বুধবার কমলগঞ্জের পৌর এলাকার চন্ডিপুর গ্রামের আনিছ মিয়ার বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। মুহুর্তের মধ্যে এ খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে আরবী অক্ষরে লেখা দু’টুকরো মাংস দেখতে ওই বাড়িতে উৎসুক লোকজন ভিড় করেন।

জানা গেছে, কমলগঞ্জ থানার সামনের চায়ের দোকানদার চন্ডিপুর গ্রামের আনিছ মিয়া বাধ্যক্ষজনিতে গত ১০ নভেম্বর মারা যান। বুধবার চতুর্থ দিনে তার পরিবার গুরু কেটে কুলখানীর আয়োজন করে। সকালে শিরনী রান্না করছিলেন হোসন মিয়া নামে স্থানীয় এক বাবুর্চি। ৪ ডেগ শিরনী (বিরানী) রান্নার জন্য গরু কেটে মাংশ প্রস্তুত করে শিরনী রান্না শুরু করেন। একে এক দুই ডেগ শিরনী করার পর সকাল ৮ টার দিকে ৩নং ডেগের শিরনী রান্না করছিলেন সহযোগী বাবুর্চি বাচ্চু মিয়া। এ সময় আল্লাহু লেখা এক টকুরো মাংস ভেসে উঠলে তিনি ওই দুই টুকরো মাংস ডেগের উপড়ে তুলে আনেন। একই ভাবে চতুর্থ ডেগের শিরনী রান্নার সময় বাবুর্চি হোসেন চোখে পড়ে ‘মোহাম্মদ’ লেখা আরেক টুকরো মাংস। শিরনী রান্না করার সময় আল্লাহু ও মোহাম্মদ লেখা আরবী অক্ষরের দু’টুকরো মাংস পাওয়া এ খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে উৎসুক লোকজন।

কমলগঞ্জ থানা জামে মসজিদের ঈমাম মাওলানা মো. আলাউদ্দিন বলেন, শিরনী রান্না করার সময় আরবী অক্ষরে লেখা মাংসের ওই টুকরো নিজে গিয়ে দেখেছি। এটি একটি অলৌকিক ঘটনা।

স্থানীয়রা জানান, আনিছ মিয়া একজন ধার্মিক মানুষ ছিলেন এবং মসজিদে গিয়ে পাঁচ ওয়াক্ত নমাজ পড়তেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত