প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

করদাতা সাজিয়ে র্অথ আত্মসাৎ আয়কর উপদেষ্টার বিরুদ্ধে মামলা

এস এম নূর মোহাম্মদ : করদাতা সাজিয়ে অর্থ আত্মসাৎকরার অভিযোগে খুলনা আয়কর বিভাগের আয়কর উপদেষ্টা মো. শহীদুল আলমের বিরুদ্ধে দায়ের হওয়া দুদকের মামলা বাতিল চেয়ে করা আবেদন খারিজ করে দিয়েছেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে আগামী ৬ মাসের মধ্যে যত দ্রুত সম্ভব মামলাটি বিচারিক আদালতে নিষ্পত্তি করতে বলা হয়েছে।

এ সংক্রান্ত পূর্বের জারিকৃত রুলের চূড়ান্ত শুনানি শেষে বুধবার বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি কে এম হাফিজুল আলমের বেঞ্চ তা খারিজ করে দেন। এর ফলে, বিচারিক আদালতে আয়কর উপদেষ্টার বিরুদ্ধে দুর্নীতির মামলা চলতে বাধা নেই বলে জানিয়েছেন আইনজীবীরা।

আদালতে দুদকের পক্ষে শুনানীতে ছিলেন আইনজীবী মো. খুরশীদ আলম খান। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ কে এম আমিন উদ্দিন (মানিক)। জানা যায়, শহীদুল আলম অসৎ উদ্দেশ্যে আয়কর নথি থেকে প্রকৃত করদাতার নাম অজ্ঞাত রেখে ভুয়া ওকালতনামার মাধ্যমে খুলনার তুলাপট্টির মেসার্স জহুরুল হককে খুলনার করদাতা প্রতিনিধি সাজিয়ে করদাতার পক্ষে কাগজপত্র দাখিল, নোটিশ গ্রহণ ও রিফান্ড ভাউচার মিলিয়ে মোট ৭ লাখ ১১ হাজার ৫৭৯ টাকা গ্রহণ করেন।

পরবর্তীতে মো. নাজির হোসেন নামক এক ব্যাক্তিকে জহুরুল হক সাজিয়ে অগ্রণী ব্যাংকের খুলনা নিউমার্কেট শাখা থেকে জালিয়াতির মাধ্যমে চলতি হিসাব ও অন্যান্য হিসাব থেকে টাকা আত্মসাৎ করে। পরে বিষয়টি তদন্ত করেন দূর্নীতি দমন কমিশনের কর্মকর্তা আবদুল্লাহ আল জাহিদ। তদন্ত শেষে শহীদুল আলমসহ তিনজনকে আসামি করে খুলনার সোনাডাঙ্গা থানায় ২০০১ সালের ৩ আগস্ট মামলা দায়ের করা হয়। এরপর ২০১২ সালের ১৩ সেপ্টেম্বর খুলনার বিভাগীয় স্পেশাল জজ তিন আসামির বিরুদ্ধে চার্জগঠন করলে শহীদুল আলম হাইকোর্টে রিভিশন মামলা দায়ের করেন।

ওই রিভিশন আবেদনের শুনানি নিয়ে হাইকোর্ট ২০১৫ সালের ১১ আগস্ট শহীদুল আলমে মামলার বাতিল বিষয়ে ৬ মাসের জন্য রুল জারি করেন। তবে রুল শুনানি শেষে বুধবার আবেদনটি খারিজ করে দেন আদালত।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ