প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কেজিবির প্রশিক্ষণ পদ্ধতি ফাঁস

এ. আর. ফারুকী : রাশিয়ার সাবেক গোয়ন্দা সংস্থা কেজিবির প্রশিক্ষনের পদ্ধতি ফাঁস হয়েছে। ইন্টারপ্রেটার পত্রিকার প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক মাইকেল ওয়েইস ডেইলি বিস্ট ও ইন্টারপ্রেটার পত্রিকায় চার পর্বে ধারাবাহিক ভাবে এই কার্যতালিকা প্রকাশ করেন।

৮০’র দশকে কেজিবির এজেন্টারা প্রায়শই দেশের ভেতরে বাইরে থেকে রিক্রুট খুঁজে নিতো। একজনকে দীর্ঘদিন ধরে অনুসরণ করা হতো। তার যাবতীয় তথ্য সংগ্রহ করা হতো অত্যন্ত গোপনীয়তার সাথে। এমনকি জেনেশুনে সিআইএর এজেন্টদেরও নিয়োগ করা হতো ডাবল এজেন্ট হিসাবে। ¯œায়ুযুদ্ধের সময় আমেরিকা-রাশিয়া দুই পক্ষই একই কাজ করেছে। এমনকি ব্রিটেনের গোয়েন্দা সংস্থা এমআই সিক্সও একই ধরনের কাজের সাথে জড়িত ছিলো।
কেজিবির অপারেটরদের এমন ভাবে ট্রেইনিং দেওয়া হতো যার ফলে তারা এমন ভাবে গড়ে ওঠতো যে তারা কেবল তাদের দৃষ্টিভঙ্গিকেই সঠিক মনে করতো। ট্রেইনিংয়ের ফলে তারা বিশে^র যেকোন প্রান্তে যেকোন অবস্থায় খাপ খাইয়ে নিতে পারতো। তাদের বিশ্লেষণী ক্ষমতা সাধারন মানুষের তুলনায় অনেক উন্ন্ত হতো।

কেজিবি কেবল দেশেই নয় দেশের বাইরেও এজেন্ট নিয়োগ দিতো। যেমন মধ্য প্রাচ্যে তারা এজেন্ট নিয়োগ দিতো খুব সতর্কতার সাথে। যেসব দেশের সাথে আমেরিকার সম্পর্ক ভালো না যেমন, সিরিয়া, ইরান, ইরাক প্রভৃতি দেশে আমেরিকা বিরোধী মনোভাব সম্পন্নদের সাথে যোগাযোগ করে তাদের দলে ভেড়াতো। ফলে কেজিবি স্থানীয়দের সহায়তায় ন্যাটো কিংবা অন্যান্য আমেরিকান সংগঠনের তথ্য সংগ্রহ করতে পারতো। বিশেষ করে যুক্তরাষ্ট্র এবং অন্যান্য পশ্চিমা দেশগুলোতে তাদের যথেষ্ঠ এজেন্ট ছিলো। ফাঁস হওয়া তথ্য থেকে আরও জানা যায় ক্রেমলিন সবসময়ই যুক্রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে আগ্রাসী মনোভাব প্রকাশ করতো

কেজিবি সাধারনত মস্কোর পরিত্যাক্ত বাড়িগুলোকে তাদের ট্রেইনিং সেন্টার হিসেবে ব্যকহ্ন করতো। আর দেশের বাইরে বিভিন্ন সাংস্কৃতিক দলের অংশ হিসেবে এজেন্টদের প্রেরণ করা হতো। সারাবিশ^জুড়ে নিয়োগকৃত কেজিবি এজেন্টদের মধ্যে যোগাযোগের এক শক্তিশালী চ্যানেল ছিলো। কেজিবি কেবল তার প্রতিপক্ষের তথ্য সংগ্রহ করেই ক্ষান্ত হতো না তারা প্রতিপক্ষের বিভিন্ন কার্যক্রমকে বাধাগ্রস্থ করতেও নানা অপারেশন চালাতো।
আজকের দিনে যেমন মাইক্রোচিপ দিয়েই দূরদূরান্তে যোগাযোগের কাজ সারা যায় কিন্তু আগের দিনে পরিস্থিতি এমন ছিলোনা। তখন রেডিও ছিলো যোগাযোগের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ন মাধ্যম। তবে যোগাযোগের জন্য কেজিবি সাধারণত মানুষ ব্যবহার করতো। তারা নানা পেশার মানুষকে কভার হিসেবে ব্যবহার করতো। ইন্টারপ্রেটার