প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

নারী ও শিশুদের প্রাধান্য দিয়ে আধুনিকায়ন হচ্ছে বনানী পার্ক

শাকিল আহমেদ: বনানী ১৮ নম্বর সড়কে অবস্থিত বনানী ক্লাব মাঠটি আধুনিকায়ন ও সংস্কারের জন্য উদ্যোগ নিয়েছে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি)। নারী ও শিশুদের অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে নির্মিত পার্কটিতে থাকছে শিশুদের বিনোদনের ব্যবস্থা এবং নারীদের জন্য ওয়াকওয়ে, বসার স্থানসহ আরো অনেক কিছু।

জনসংখ্যা বৃদ্ধি ও ঘনবসতির কারনে দিন দিন বাস যোগ্যতা হারাচ্ছে মহানগরী ঢাকা। রাজধানীবাসীর শরীরচর্চা, বিনোদন এবং শিশু-কিশোরদের শারীরিক ও মানসিক বিকাশের কোন স্থান নেই এ শহরে। তাই ডিএনসিসি এলাকায় ২২টি পার্ক ও ৮টি খেলার মাঠ সংস্কার করছে ডিএনসিসির পরিবেশ, জলবায়ু পরিবর্তন ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিভাগ। এই ২২টি পার্ক ও ৮টি খেলার মাঠের মধ্যে রয়েছে বনানী ক্লাব মাঠ। এই মাঠের আয়তন ১ দশমিক ২১ একর। পার্কটি সংস্কার ও উন্নয়নে ব্যয় ধরা হয়েছে ৭ কোটি ৭৫ লাখ টাকা। চলতি বছরের এপ্রিল মাসে শুরু করে আগামী বছরের ৩১ মার্চে এর কাজ শেষ করার কথা রয়েছে।

সরেজমিনে দেখা যায়, পার্কটির সংস্কার কাজ চলমান রয়েছে। চারপাশে টিন দিয়ে ঘিরে ইটবালু, সিমেন্ট, দিয়ে ভিতরে কাজ করছে শ্রমিকরা। পুরো পার্কটি নতুন করে সাজানো হবে বলে জানান ডিএনসিসির পরিবেশ, জলবায়ু পরিবর্তন ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা সার্কেলের তত্ত¡াবধায়ক প্রকৌশলী তারিক বিন ইউসুফ। তিনি বলেন, বনানীর এই পার্কটিতে আমরা মূলত নারীও শিশুদের অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে নির্মাণ করছি। সংস্কারের পর নামকরণ বোর্ডের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী এর নাম ঠিক করা হবে। পার্কটি হবে খোলামেলা, সবুজ আর ছায়াঘেরা। এখানে শিশুদের বিনোদনের বিভিন্ন উপকরণ, ওয়াকওয়ে, সাইকেল লেন তৈরী করা হবে। নারীদের জন্য হাটার ব্যবস্থা, বসার স্থান, গণশৌচাগারসহ থাকবে আধুনিক সব সুযোগ সুবিধা।

বনানী পার্ক তৈরীর নকশার কাজ করেছে ভিত্তি স্থপতিবৃন্দ লিমিটেড। এই প্রতিষ্ঠানের স্থপতি ইকবাল হাবীব বলেন, পার্কটির নকশা তৈরী করার আগে আমরা এলাকার বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষের সাথে কথা বলেছি। এসব পার্কে যাতে সব বয়স, শ্রেণীর মানুষের যাতায়াত সুগম হয় এবং বিনোদনের ব্যবস্থা থাকে, সে বিষয়ে গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে। ঢাকা শহরে যায়গার সংকট রয়েছে তাই আমরা ভাবছি যেখানে পার্ক আছে, সেখানে খেলার মাঠও রাখা হবে। আবার যেখানে মাঠ আছে সেখানে পার্কের সুবিধা থাকবে।

সম্পাদনা:শাহীন চৌধুরী

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত