প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

পুরোনো দুর্গ পুনরুদ্ধারে মরিয়া জাপা

মো.ইউসুফ আলী বাচ্চু : জাতীয় পার্টির দুর্গ হিসেবে পরিচিত উত্তরাঞ্চলের বিভাগ রংপুরের আসনগুলো দখলে আওয়ামী লীগের। কিন্তু একাদশ জাতীয় নির্বাচনে কোনোভাবেই ছাড় দিতে নারাজ জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় নেতারা। এ নিয়ে দফায় দফায় বৈঠকে ও বসেন তারা। একাদশ সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে এবার তারা এই হারানো আসন পুনরুদ্ধারে মরণপণ লড়াই করবে বলে জানা গেছে।

পরিসংখ্যানে দেখা গেছে ১৯৯১ সালের ৫ম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে রংপুর বিভাগের ৩৩ আসনের মধ্যে জাপার দখলে আছে ১৭ টি। ওই সময় এরশাদ জেলে খাকলেও রংপুর সদরের ৬ টি আসনের মধ্যে ৫টি আসন পান এরশাদ। ৬ষ্ঠ জাতীয় সংসদ নির্বাচন বিএনপি একতরফাভাবে নির্বাচন করায় জাতীয় পার্টি অংশগ্রহণ করেনি। ৭ম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে রংপুর সদরের ৬ টি আসনের মধ্যে ৪টি আসন পান এরশাদ। ১৯৯৬ সালের পর হাতছাড়া হওয়া আসন আর পুনরুদ্ধার সম্ভব হয়নি। ২০০৮ সালে নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আসন গিয়ে দাঁড়ায় ১৪টিতে। এ নির্বাচনে জাপার দুর্গ রংপুরের ৬ আসনের মধ্যে তিনটিরই দখল নেয় আওয়ামী লীগ। যদিও ১৯৯১ সালের নির্বাচনের উল্টো ফলাফল দাঁড়ায় ২০১৪ সালের নির্বাচনে। জাপার দখলে থাকে দুটি আসন, আর চারটিই চলে যায় আওয়ামী লীগের দখলে।

এ বিষয় জাতীয় পার্টির কো- চেয়ারম্যান জি এম কাদের বলেন, আমরা সর্বশক্তি দিয়ে এবার নির্বাচনে চেষ্টা করব পুরানো আসনগুলো পুনরুদ্ধার করতে। আমি নয় শুধু জাতীয় পার্টিও চায় এই আসনগুলো উদ্ধার করতে। তাই এবার চেষ্টা করব সব আসনে প্রার্থী দেয়ার।

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মোহাম্মদ এরশাদের দ্বিমুখী বক্তব্য এবং ভিবিন্ন সময় নানা রকম সিদ্ধান্তের কারণে, নেতাকর্মীদের সমন্বয়হীনতার কারণে ক্রমশ ভাটা পড়েছে সংগঠনটির সাংগঠনিক কাঠামোতে।

নিষ্ক্রিয় হয়ে পড়ছে জেলা, উপজেলা ও তৃণমূলের অনেক নেতাকর্মী। বিশেষ করে পার্টির চেয়ারম্যান গেল কয়েক বছরের সংসদ থেকে স্থানীয় পর্যায়ের নির্বাচনে জাপা প্রার্থীদের পিছুহটা ও শোচনীয় পরাজয়ের মধ্য দিয়ে পার্টির জনপ্রিয়তা তলানীতে নামছে বলে মনে করছেন রংপুরের সাধারণ মানুষ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত