প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মিরাজ দর্শন মুশফিকের

স্পাের্টস ডেস্ক : আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেকের পর থেকে বোলার মেহেদী হাসান মিরাজকে নিয়ে যতটা মুগ্ধতা আর উচ্ছ্বাস, ঠিক ততটাই আফসোস, অপূর্ণতা ব্যাটসম্যান মিরাজের জন্য। বয়সভিত্তিক পর্যায়ে তার মূল পরিচয় ছিল ব্যাটসম্যানের। মিডল অর্ডারে আস্থার সঙ্গে ব্যাটিংয়ের দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি কাজ চালিয়ে যাওয়ার মতো স্পিনও করতে পারেন- এমনই ছিল পরিচয়।

কিন্তু দুই বছর আগে ইংল্যান্ড সিরিজ দিয়ে অভিষেক হতে না হতেই পরিচয় গেল উল্টো- হয়ে গেলেন জেনুইন অফস্পিনার, আর ব্যাটিংয়ে টেল এন্ডার। অভিষেক সিরিজে ১৯ উইকেট পাওয়াতেই হয়তো আড়ালে পড়ে গিয়েছিল তার ব্যটিং সামর্থ্য। কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে আবারও ব্যাটিং সক্ষমতার প্রমাণ রাখছেন ডানহাতি এ অলরাউন্ডার। এশিয়া কাপে ভারতের বিপক্ষে ৪২ ও ৩২ রানের দুটি ইনিংস খেলার পর গতকাল মিরপুরে খেললেন ৬৮ রানের অপরাজিত ইনিংস।

যার সঙ্গে ১৪৪ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি গড়েছেন, সেই মুশফিকুর রহিমের মতে, মিরাজের আরও বড় কিছু করার সামর্থ্য আছে। আগামী দিনে বাংলাদেশের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড় হয়ে যেতে পারে বলেও মনে করছেন ডাবল সেঞ্চুরিতে বিশ্বরেকর্ড গড়া মুশফিক।

মিরাজকে নিয়ে আশাবাদের কথা শোনাতে গিয়ে তার চারিত্রিক বৈশিষ্ট্যকে টেনে আনলেন মুশফিক, ‘মিরাজের সঙ্গে ব্যাটিং আমি সব সময় উপভোগ করি। সে খুব প্রাণবন্ত থাকে। মজার একটা চরিত্র। ওর মতো একজন খেলোয়াড় মাঠে থাকা সব সময়ই উপভোগ্য। মাঠে সে আমাকে যেভাবে বোঝাচ্ছিল মনে হচ্ছিল, সে দুইশ’ রানে ব্যাট করছে, আমি মাত্র ক্রিজে এসেছি। আমি সব সময়ই বলি, তার মাঝে অমিত সম্ভাবনা আছে। মনোযোগ আর প্রত্যয় তার সবচেয়ে বড় ব্যাপার। অনেক সময় হয়তো বাজে শটে আউট হয়ে যায়; কিন্তু আজ যেভাবে ব্যাটিং করেছে, তাতে সে আগামী দিনে বাংলাদেশের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড় হতে পারে। আমি ওকে এগুলোই বলার চেষ্টা করি।’

‘উপভোগ্য’ চরিত্রের পাশাপাশি ক্রিকেটটাও মিরাজ খুব ভালো বোঝেন বলে মনে করছেন মুশফিক। গতকালের আগে গত বছরের হায়দরাবাদ টেস্টে ভারতের বিপক্ষে ৫১ রানের ইনিংস খেলেছিলেন মিরাজ। সেই ইনিংসেও তার সঙ্গী ছিলেন মুশফিক। সে কথা স্মরণ করে বাংলাদেশ দলের সাবেক অধিনায়ক।

তিনি বলেন, ‘সে কিন্তু সবই জানে। একটা দূরের বল খেললে বলে ‘ভাই আমি তো দূরের বল খেলে দিছি। আমি বলি, তুই তো জানিস, তাও কেন খেলিস? ও খুব মজার ছেলে। আর একটা ব্যাপার ভালো লাগছে, টেস্টে তার দুইটা ফিফটি, দুইবারই আমি ওর সঙ্গে ছিলাম। আর একটা সে মিস করেছে। গলে আমাদের প্রথম টেস্টে মনে হয় ৪৫ রান করেছিল। ওই ম্যাচে আমার একশ’ মিস হয় তার কারণে। সে আউট হয়ে যাওয়ার পর আমি আর কোনো পার্টনার পাইনি। আজকে তাকে বলছিলাম, আমার দুইশ’ হওয়া পর্যন্ত তুই অন্তত থাকিস।-সমকাল

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ