প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

নির্বাচন ২১ বা ২৩ জানুয়ারি হলেও মহাভারত অশুদ্ধ হতো না: প্রিন্স

মো: মারুফুল আলম : বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক এমরান সালেহ প্রিন্স বলেছেন, ২৩ ডিসেম্বরের দুই দিন পরে ক্রিস্টমাস, আর ৩০ ডিসেম্বরের পর নিউইয়ার। ২১ বা ২৩ জানুয়ারী নির্বাচন হলে মহাভারত অশুদ্ধ হতো না। ২৩ ডিসেম্বর ও ৩০ ডিসেম্বর পরপর দুইবার নির্বাচনের তারিখ ঘোষণাকে বিদেশী পর্যটক আসতে না পারার ষড়যন্ত্র আখ্যায়িত করে সোমবার ইনডিপেন্ডেন্ট টিভির টকশো’তে তিনি এ কথা বলেন।

প্রিন্স বলেন, প্রধানমন্ত্রী সংলাপে বলেছিলেন, ‘যত ইচ্ছা তত বিদেশী পর্যবেক্ষক আসুক আমাদের কোন অসুবিধা নেই’। কিন্তু ২৩ ডিসেম্বর বলেন বা ৩০ ডিসেম্বর বলেন, বিদেশি পর্যটকরা আসতে পারবে না। নিশ্চয়ই এটি একটি ষড়যন্ত্র। নির্বাচনের তারিখ একমাস না পেছালে এই নির্বাচন জনগণের কাছে গ্রহণযোগ্য হবে না।

বেগম জিয়ার জন্য তিনটি আসন থেকে দলীয় ফরম সংগ্রহ করা হয়েছে। এর মানে কি মুক্তির পর বেগম জিয়া নির্বাচন করবেন? এর উত্তরে প্রিন্স বলেন, অবশ্যই বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ওয়ান টুর ব্যাপার যদি সরকার তার মুক্তির ব্যাপারে হস্তক্ষেপ না করে। আইনি কাঠামোর মধ্যেই সরকার হস্তক্ষেপ করছে। কিভাবে খালেদা জিয়া নির্বাচন করবেন এটা আইনেই লেখা আছে কিন্তু সেই সুযোগটা আমাদের দেওয়া হচ্ছে না। প্রথম সংলাপে এ বিষয়ে ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার পয়েন্ট টু পয়েন্ট উল্লখ করেছেন।

খালেদা জিয়ার মামলা বিষয়ে আপনারা ড. কামাল হোসেনের কাছে গিয়েছিলেন কি না জানতে চাইলে তিনি উত্তরে বলেন, হ্যাঁ আমরা গিয়েছিলাম। তবে উনাকে আইনি লড়াইয়ে সম্পৃক্ত করতে নয়, বরং উনার পরামর্শ নিতে। একজন প্রথিতযশা আইনজীবী হিসেবেই ড. কামাল হোসেনের পরামর্শ চাওয়া হয়েছে এবং তিনি পরামর্শ দিয়েছেনে। খালেদা জিয়ার রায়ের পরে তিনি তার অবজারবেশন থেকে বলেছেন যে, ‘এই মামলার রায় এটা হতে পারে না’।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ