প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

লেভেল প্লেয়িং ফিল্ডই কি নির্বাচন কমিশনের সামনে চ্যালেঞ্জ?

আশিক রহমান : অনেক নাটকীয়তার পর বিএনপি-ঐক্যফ্রন্ট জোট নির্বাচনে আসার ঘোষণা দিয়েছে। তাদের দাবি মতো নির্বাচনের তারিখও পরিবর্তন করেছে নির্বাচন কমিশন। সরকারদলীয় জোটগুলোও নির্বাচনের জন্য প্রস্তুতি গ্রহণ, প্রচার ও মনোনয়নপত্র বিক্রি শুরু করেছে। প্রশ্ন উঠেছে, সব দল নির্বাচনমুখী হলেও লেভেল প্লেয়িংফিল্ড কী নিশ্চিত হচ্ছে? একটি সুষ্ঠু নির্বাচন হতে যাচ্ছে তো? পারবে কি নির্বাচন কমিশন সুষ্ঠু নির্বাচনী পরিবেশ নিশ্চিত করতে? জাতীয় অধ্যাপক ড. আনিসুজ্জামান মনে করেন, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপি ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের যোগদানের সিদ্ধান্ত একটি ইতিবাচক ঘটনা। আমরা প্রত্যাশা করি, রাজনৈতিক দলগুলোর অংশগ্রহণের মধ্য দিয়ে একটি অবাধ, সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন করা সম্ভব হবে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইমেরিটাস অধ্যাপক সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, নির্বাচনে সব দলের অংশগ্রহণ খুব বাঞ্ছনীয়। সবার অংশগ্রহণ না থাকলে নির্বাচন বিশ্বাসযোগ্য হতো না। সবাই নির্বাচনে অংশগ্রহণ করছে, এটা ভালো খবর। এখন দেখতে হবে নির্বাচনের পরিবেশ যাতে থাকে।

সবাই যাতে সমান সুযোগ যেন পায় প্রচার করার জন্য এবং শেষ পর্যন্ত ভোটাররা যেন নির্বিঘ্নে ভোট দিতে পারেন।

তিনি বলেন, ভোটাররা নির্বিঘ্নে ভোট দিতে না পারলে নির্বাচন গ্রহণযোগ্য হবে না। এদিকে নজর রাখতে হবে। এখানে সরকারের দায়িত্বই বেশি। কারণ সরকার ক্ষমতায় আছে। দুই. সরকার নির্বাচনে অংশগ্রহণ করছে। কাজেই এখন ওই পরিবেশটা নিশ্চিত করা দরকার যাতে মানুষ বুঝতে পারে তাদের মতপ্রকাশের একটা সুযোগ এসেছে। সেই সুযোগের তারা সদ্ব্যব্যবহার করতে পারে।

তিনি আরও বলেন লেভেল প্লেয়ি ফিল্ড নিশ্চিত করার ক্ষেত্রে নির্বাচন কমিশনের অনেক বড় দায়িত্ব রয়েছে। কারণ একটা সুষ্ঠু নির্বাচন করার দায়িত্ব তাদেরই। ভালো একটি নির্বাচন করার জন্য তাদের যে ক্ষমতা রয়েছে, তা প্রয়োগ করা দরকার। উপজেলা বা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে তা আমরা দেখিনি। তাদের ক্ষমতা তারা প্রয়োগ করেননি।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ