Skip to main content

তারপরেও বিরোধী জোটের আপত্তি

সৌরভ নূর : বাংলাদেশে একাদশ সংসদ নির্বাচনের ভোট গ্রহণের নতুন তারিখ ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন। ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ এ ঘোষণাকে স্বাগত জানালেও অসন্তোষ প্রকাশ করেছে বিরোধী জোট জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। এর আগে এক মাস তফসিল পেছানোর দাবি জানিয়েছিল ঐক্যফ্রন্ট । বিদেশি পর্যবেক্ষকদের সংখ্যা কমে আসার আশঙ্কা জানিয়ে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মওদুদ আহমেদ বলেছেন, নির্বাচন কমিশন যে সিদ্ধান্ত নিয়েছে, তাতে তাদের দাবির প্রতিফলন ঘটেনি এবং এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে আজই আমরা বৈঠকে বসবো। তিনি আরও বলেন, এটা আরও অনেক পিছাতে পারতেন। তাদের আইনগত কোন বাধা ছিল না এবং কোন তাড়াহুড়াও ছিল না। কেন তারা মাত্র সাতদিন বাড়ালেন সেটা বোঝা মুশকিল। আমরা দলীয়ভাবে এটার একটা প্রতিক্রিয়া জানাবো। জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের আরেকজন নেতা মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, ‘দুটি যৌক্তিক কারণেই নির্বাচন এক মাস পিছিয়ে দেয়ার প্রস্তাব দিয়েছিলাম আমরা’। কমিশনের সেটি মেনে নেয়া উচিত বলে মনে করেন তিনি। মান্না বলেন, তিন’শো আসনে মনোনয়ন দেয়া, বিভিন্ন দল মিলে একটা সমন্বিত পদক্ষেপ নেয়া, আসনগুলো বণ্টন করা, এগুলো সময় সাপেক্ষ ব্যাপার। সাতদিন পিছিয়ে দেয়াটা যথেষ্ট নয়। তিনি আরও বলেন, যেহেতু একটা খুবই প্রশ্নবিদ্ধ নির্বাচনের পরে আমরা চাচ্ছি একটা প্রশ্ন মুক্ত, গ্রহণযোগ্য নির্বাচন। সেই জন্য যেন বিদেশি পর্যবেক্ষকরা উপস্থিত থাকতে পারেন, পর্যবেক্ষণ করতে পারেন। কিন্তু এরকম একটা সময় নির্বাচন হচ্ছে যখন তাদের আসবার সুযোগ খুবই কম। সূত্র : বিবিসি

অন্যান্য সংবাদ