প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে কোন বন্দী শিবিরে রাখা হবে না তা নিশ্চিত করতে হবে বাংলাদেশকেই: যুক্তরাষ্ট্র

আসিফুজ্জামান পৃথিল : রোহিঙ্গা শরণার্থীদের স্বেচ্ছায় নিরাপদ প্রত্যাবাসনের উপর গুরুত্বারোপ করেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। দেশটি মনে করে, প্রত্যাবাসনের নাম করে এই সংখ্যালঘু জনগোষ্ঠীকে মিয়ানমার কোন বন্দী শিবিরে আটকে রাখবে না তা ঢাকাকেই নিশ্চিত করতে হবে। রোববার এক বিবৃতিতে যুক্তরাষ্ট্রের স্টেট ডিপার্টমেন্ট এ কথা বলেছে।

বিবৃতিটিতে বলা হয়েছে, ‘আমরা সময়ের পূর্বেই পত্যাবাসনের বিষওেয় দুই দেশের সরকারকেই আমাদের শঙ্কার কথা জানিয়েছি। আমরা জোর দিয়ে বলেছি এই ফেরার খুঁটিনাটি আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে অবশ্যই অবহিত করতে হবে। এই প্রত্যাবাসন হতে হবে নিরাপদ, স্বেচ্ছা এবং সম্মানজনক। বার্মায় পুনরায় ফেরার পর এই সংখ্যালঘু জাতিগোষ্ঠীকে অবশ্যই স্বাধীনভাবে চলাচল করতে দিতে হবে। তাদের কোন শিবিরে আটকেরাখা যাবে না।’ স্টেট ডিপার্টমেন্ট আরো জানিয়েছে, মিয়ানমার রোহিঙ্গাদের ফেরার জন্য এখনও নিরাপদ নয়, জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থার এ ধারণার সঙ্গে তারা একমত।

গত মাসে রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনের বিষয়ে একটি চুক্তিতে উপনিত হয় ঢাকা এবং নেপেইদো। এই মাসের মাঝামাঝি সময়ে শরণার্থীদের একটি অংশকে মিয়ানমারে ফিরিয়ে নেওয়ার কথা রয়েছে। জানা গিয়েছে, প্রাথমিক অবস্থায় ২ হাজার শরণার্থীকে ফিরিয়ে নেওয়া হবে। ২০১৭ সালের ২৫ আগস্ট সীমান্তবর্তী সেনাচৌকিতে কথিত সন্ত্রাসী হামলার অভিযোগে বড় পরিসরে সেনা অভিযান শুরু করে মিয়ানমার। এর ফলে ৭ লক্ষাধিক রোহিঙ্গা বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়। এ ঘটনাকে গণহত্যা বলে অভিহিত করেছে জাতিসংঘ। এনডিটিভি