প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

৫ বছরে ভারতে সর্বোচ্চ ব্যাংক ঋণ ৯৩ লাখ কোটি রুপি

রাশিদ রিয়াজ : ভারতে অনুৎপাদনশীল খাত নিয়ে দুশ্চিন্তার পাশাপাশি ঋণের পরিমাণ বাড়ছে আশঙ্কাজনকহারে। এমনকি গত কয়েক মাস ধরে সুদের হার বাড়লেও, অক্টোবরের শেষে ভারতে ব্যাংক ঋণের পরিমাণ বৃদ্ধি পায় ১৪.৪১ শতাংশ। ভারতের রিজার্ভ ব্যাংকের পরিসংখ্যান অনুসারে, ২৬ অক্টোবর শেষ হওয়া পক্ষকালে ( ১৫ দিনে) তা দাঁড়িয়েছে ৯৩.০১ লাখ কোটি রুপি। এই অংকটি গত পাঁচ বছরে সর্বোচ্চ। এর থেকে বেশি শেষ ২০১৩ সালের অক্টোবরে বেড়েছিল যা ছিল ১৬.৬ শতাংশ। টাইমস অব ইন্ডিয়া

বিশেষজ্ঞদের ধারণা, ভারতে নগদের সংকটে রয়েছে ব্যাংক খাতের বাইরে আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলি (এনবিএফসি)। বিশেষত পরিকাঠামো ক্ষেত্রে ঋণদাতা সংস্থা আইএল অ্যান্ড এফএস আর্থিক সংকট প্রকাশ্য এসেছে। তাছাড়া আরও বেশ কিছু এনবিএফসি-র অবস্থা ভাল নয় বলে বাজারে আশঙ্কা দানা বেঁধেছে। তারই প্রতিফলনে ব্যাংকগুলি থেকে ঋণ নেওয়া বেড়েছে।

একই সঙ্গে এমন পরিস্থিতিতে ব্যাংক ঋণের সাথে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে বাজার দখল বৃদ্ধির। কারণ এ পরিস্থিেিত যেসব ক্ষেত্রে এনবিএফসিগুলি পরিষেবা দেয়, সেই সব ক্ষেত্রে ব্যাংকগুলির সরাসরি ঋণ দেওয়ার সুযোগ তৈরি হচ্ছে। এই সময়ে ঋণের চাহিদা বাড়লেও, আমানত কমেছে বলে জানাচ্ছে রিজার্ভ ব্যাংক। ২৬ অক্টোবরে শেষ হওয়া পক্ষকালে তা ১২০.৭১ লাখ কোটিতে দাঁড়িয়েছে যেখানে তার আগের পক্ষ কাল অর্থাৎ যা ১২ অক্টোবর শেষ হযয়েছিল তখন তা ছিল ১২০.৮৭ লাখ কোটি রুপি।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ