Skip to main content

আজ সেই ভয়াল ১২ নভেম্বর

সাজিয়া আক্তার : আজ ১২ই নভেম্বর, ১৯৭০ সালের এই দিনে ভয়াল প্রলয়ংকরী ঘূর্ণিঝড় ও জলোচ্ছ্বাসে ভোলা, লক্ষ্মীপুরসহ উপকূলীয় এলাকায় নিহত হয় প্রায় ৩ লাখ মানুষ। ১০ ফুট উচ্চতার এই জলোচ্ছ্বাসে স্রোতের টানে ভেসে যায় মানুষ, গবাদি পশুসহ ঘরবাড়ি। সূত্র : ডিবিসি টেলিভিশন সেই রাতের ঘূর্ণিঝড় যখন আঘাত হানে, তখন বাতাসের গতিবেগ ছিলো ঘন্টায় ২শ’ ২২ কিলোমিটার। উত্তাল ঢেউয়ের প্রবল স্রোতে ভেসে যায় রামগতি উপজেলার শেখেরকিল্লা, গুচ্ছগ্রাম, চর আবদুল্লাহ, বয়ারচর, চর জাহাঙ্গীর, কমলনগর উপজেলার সাহেবের হাট, মাতাব্বর হাট, চর জগদ্বন্ধু, চর সামছুদ্দিন, চর কাঁকড়া, সদর উপজেলার চর মনসা ও চর রমনী মোহন এলাকার মানুষ, গবাদি পশু, হাজার হাজার একর ফসলি জমি ও বসত-বাড়ি। সেদিনের দুর্যোগের কথা মনে পড়লে আজও আঁতকে ওঠে উপকূলীয় এলাকার মানুষ। প্রাকৃতিক দুর্যোগের ঝুঁকি এড়াতে ও উপকূলীয় এলাকার মানুষকে রক্ষায় পর্যাপ্ত আশ্রয় কেন্দ্র নির্মাণের দাবি জানিয়েছেন, স্থানীয় জনপ্রতিনিধি তোরাবগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ফয়সাল আহমেদ রতন। ১২ই নভেম্বরের এই ভয়াবহ জলোচ্ছাসে প্রাণ হারানো মানুষদের স্মরণ করে এই দিনকে ‘জাতীয় দুর্যোগ দিবস’ ঘোষণার দাবি উপকূলবাসীর।

অন্যান্য সংবাদ