প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

শ্বশুরের বিরুদ্ধে পুত্রবধূকে নির্যাতনের অভিযোগ

জামাল হোসেন খোকন, জীবননগর: জীবননগর হাসাদহে শ্বশুরের বিরুদ্ধে পুত্রবধূকে তুচ্ছ ঘটনায় অত্যাচার-নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে। ঘটনাটি রোববার সকালে সংঘটিত হয়েছে। আহত পুত্রবধূকে জীবননগর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

পারিবারিক সুত্র জানায়, জীবননগর উপজেলার হাসাদহ ইউনিয়নের বৈদ্যনাথপুর গ্রামের লাবু মন্ডলের ছেলে রবিউলের(২৫) সাথে গত তিন বছর আগে হাসাদহ গ্রামের ফরজ আলীর কন্যা আমেনা খাতুনের সাথে বিয়ে হয়। তাদের দাম্পত্য জীবনে নানা বিয়ষ নিয়ে তর্ক-বিতর্কের এক পর্যায়ে যৌতুক দেয়া না দেয়ার ব্যাপারটি নিয়ে আলোচনায় উঠে আসে। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে রোববার সকালে শ্বশুর-শ্বাশুড়ীর মধ্যে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে উত্তেজিত হয়ে শ্বশুর লাবু পুত্রবধূ আমেনা খাতুনকে মারপিট করে।

নির্যাতনের শিকার গৃহবধূ আমেনা খাতুন বলেন, আমার শ্বশুর-শ্বাশুড়ী যৌতুকের টাকার জন্য প্রায়ই নানা ভাবে অত্যাচার নির্যাতন করে আসছে। একই ভাবে রোববার সকালে আমাকে আমার নিকট যৌতুক দাবী করলে আমি প্রতিবাদ করাই আমার শ্বশুর আমাকে মারপিট করে। এ সময় আমার চাচা শ্বশুর সাজ্জাদও আমাকে মারপিট করে। আমেনার স্বামী রবিউলের দাবী আমার বাবা-মা নয় আমার চাচা সাজ্জাদও আমার স্ত্রী আমাকে নির্যাতন করে থাকে। আমি তাদের ভয়ে কিছু বলতে সাহস পাইনা।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত সাজ্জাদ বলেন, আমি রোববার সকালে বাড়ীতে বসে ছিলাম। ওই সময় আমেনা খাতুন আমার ভাই-ভাবীকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করছিল। এমনি ভাবীকে মারপিট করতে উদ্যত হয়। এ সময় আমি রাগ চেক দিতে না পেরে তাকে একটি চড় মারি। তবে যৌতুকের জন্য নির্যাতন করার কথা ডাঁহা মিথ্যা এবং ওই কথা বলে আমাদেরকে হয়রানির করার একটি পরিকল্পনা।

জীবননগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স মেডিকেল অফিসার ডা.জাহাঙ্গীর আলম বলেন, আমেনা খাতুন নামের একজন রোগী রোববার সকালে ভর্তি হয়েছে। তাকে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। তিনি মোটামুটি সুস্থ্য আছেন। কি জন্য তাকে নির্যাতন করা হয়েছে তা আমরা জানি না।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ