প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কোন জোটে কোন দল

সমকাল : নির্বাচন কমিশনে (ইসি) নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে ১৫টি ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের প্রতীক নৌকা ও ১০টি বিএনপির ধানের শীষ নিয়ে ভোটে যেতে আগ্রহী। তবে বিএনপির পক্ষ থেকে দলগুলোর নাম প্রকাশ করা হলেও আওয়ামী লীগ গোপন রেখেছে। নির্বাচন-সংক্রান্ত আইন গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশে (আরপিও) ভোটে নিবন্ধিত দলগুলো জোটবদ্ধ হয়ে যে কোনো একটি দলের প্রতীক ব্যবহার করতে চাইলে তা তফসিল ঘোষণার পরবর্তী তিন দিনের মধ্যে ইসিকে জানানোর বিধান আছে। গতকাল রোববার নির্ধারিত ওই তিন দিন শেষ হয়েছে।

গতকাল বিকেলে আওয়ামী লীগের একটি প্রতিনিধি দল ইসিতে গিয়ে জোটবদ্ধ নির্বাচনে প্রতীক ব্যবহার-সংক্রান্ত চিঠি ইসি সচিবকে দিয়েছে বলে দাবি করেছেন দলের সাংগঠনিক সম্পাদক মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল। তবে চিঠির বিস্তারিত প্রকাশ করতে তিনি অস্বীকৃতি জানান। সাংবাদিকরা দলগুলোর নাম জানতে চাইলে তিনি বলেন, ইসির কাছে নাম জমা দেওয়া হয়েছে। সেখান থেকে জানতে হবে। আওয়ামী লীগের প্রতিনিধি দলের একজন অবশ্য জানিয়েছেন, চিঠিতে ১৫টি রাজনৈতিক দলের সঙ্গে জোটবদ্ধভাবে নির্বাচনের কথা উল্লেখ করা হয়েছে।

ইসি সচিবকে চিঠি দেওয়ার পর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল সাংবাদিকদের বলেন, তারা আরপিওর বিধান অনুযায়ী চিঠি দিয়ে জোটবদ্ধ নির্বাচনের কথা জানিয়েছেন। যারা নৌকা প্রতীকে নির্বাচন করবে, তাদের একটি তালিকাও দিয়েছেন। ১৪ দল ও ‘অন্য যারা আছেন’, তাদের সঙ্গে নির্বাচন করার রাজনৈতিক পরিকল্পনা রয়েছে তাদের। কোন কোন দল নৌকা প্রতীক নিচ্ছে- জানতে চাইলে মহিবুল বলেন, এই গোপনীয় তথ্য ইসি ও আওয়ামী লীগ এ দু’পক্ষের মধ্যে সীমিত।

এদিকে, আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন ১৪ দলীয় জোটের শরিকদের পক্ষ থেকে পৃথক চিঠি দিয়ে নৌকা প্রতীকে নির্বাচনে অংশ নেওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করেছে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জাসদ (ইনু)। আনোয়ার হোসেন মঞ্জুর নেতৃত্বাধীন জাতীয় পার্টি (জেপি) বলেছে, ১৪ দলীয় জোটের প্রতীক নিয়ে তারা নির্বাচনে অংশ নিতে চায়।

এর আগে বিএনপিবিহীন দশম সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের জোট শরিকদের মধ্যে ওয়ার্কার্স পার্টি ছয়টি আসনে, জাসদ পাঁচটি আসনে, জেপি ও তরীকত ফেডারেশন দুটি করে আসনে নির্বাচিত হয়েছিল। ১৪ দলে যোগ দিয়ে এবার নাজমুল হুদাও নৌকা প্রতীকে ভোট করতে চাইছেন। তবে তার দলের নিবন্ধন নেই। এদিকে গতবার জাতীয় পার্টি আলাদা নির্বাচন করলেও এবার বিএনপি আসায় আওয়ামী লীগের সঙ্গে জোট বেঁধে নির্বাচন করবে। তবে জাতীয় পার্টি লাঙ্গল প্রতীক নিয়েই ভোটে নামবে।

গতকাল বিএনপির পক্ষ থেকে ইসিকে দেওয়া এক চিঠিতে বলা হয়েছে, তাদের শরিক আটটি দল এবারের ভোটে বিএনপির ধানের শীষ প্রতীকে নির্বাচন করবে। এই দলগুলোর মধ্যে রয়েছে- বিএনপি, অলি আহমদের নেতৃত্বাধীন লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি (এলডিপি), আন্দালিব রহমান পার্থের জাতীয় পার্টি (বিজেপি), মুহাম্মদ ইসহাকের খেলাফত মজলিশ, তাসমিয়া প্রধানের জাতীয় গণতান্ত্রিক পার্টি, মুহাম্মদ ইবরাহিমের কল্যাণ পার্টি, কামারুজ্জামানের বাংলাদেশ মুসলিম লীগ ও নূর হোসাইন কাসেমীর জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ।

ঐক্যফ্রন্টের শরিক ও সরকারবিরোধী এই জোটের শীর্ষ নেতা ড. কামাল হোসেনের দল গণফোরাম বলেছে, গণফোরাম যদি নির্বাচনে অংশ নেয়, তা হলে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শরিক হিসেবে অংশ নেবে। তারা দলীয় প্রতীক ‘উদীয়মান সূর্য’ নিয়ে নির্বাচনে অংশ নেবে।

জাসদ নৌকা প্রতীকে নির্বাচন করতে চায় : আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন ১৪ দলীয় জোটের সঙ্গে নৌকা প্রতীকে নির্বাচন করতে চায় জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জাসদ)। গতকাল রোববার সিইসির কাছে জাসদের সভাপতি হাসানুল হক ইনু স্বাক্ষরিত এ-সংক্রান্ত চিঠি পাঠানো হয়।

চিঠিতে সিইসির উদ্দেশে বলা হয়, বিগত দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের মতোই আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ইসি নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলগুলো জোটবদ্ধ হয়ে নির্বাচন করছে। গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশের (আরপিও) ২০-এর ১-এর (এ) ধারা অনুযায়ী, ১৪ দলীয় জোটের শরিক দল হিসেবে জাসদ ও ১৪ দলীয় জোট মনোনীত অভিন্ন প্রার্থীদের জন্য বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সংরক্ষিত নির্বাচনী প্রতীক নৌকা সংরক্ষিত রাখার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার অনুরোধ করা হয় এ চিঠিতে।

ধানের শীষ ও ছাতা মার্কায় নির্বাচন করতে চায় এলডিপি : একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ধানের শীষ ও ছাতা- এ দুই প্রতীকে নির্বাচন করতে চায় লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি (এলডিপি)। গতকাল রোববার রাজধানীর আগারগাঁওয়ে অবস্থিত নির্বাচন কমিশনে দুই প্রতীক চেয়ে চিঠি জমা দেন এলডিপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব শাহাদাত হোসেন সেলিম।

এলডিপির প্রেসিডেন্ট অলি আহমদ স্বাক্ষরিত চিঠিতে বলা হয়, এলডিপির মনোনীত প্রার্থীদের মধ্যে কেউ কেউ এলডিপির প্রতীক ছাতা মার্কা নিয়ে নির্বাচন করবেন। আবার কয়েকজন প্রার্থী ২০ দলীয় জোটের প্রধান শরিক দল বিএনপির প্রতীক ধানের শীষ নিয়ে নির্বাচনে অংশ নেওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন।

এ বিষয়ে শাহাদাত হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, দুই প্রতীকে নির্বাচনের বিষয়টি ইসিকে জানিয়েছি। তারা আবেদন গ্রহণ করবে কি-না, সেটা তাদের ব্যাপার। আইনে থাকলে গ্রহণ করবে, না থাকলে করবে না। ইসি এ বিষয়ে কী সিদ্ধান্ত নেয়, সেটা আনুষ্ঠানিকভাবে জানাবে বলে আশা করছি।

‘ধানের শীষ’ ও ‘তারা’ মার্কায় নির্বাচন করতে চায় জেএসডি : জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শরিক দল জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জেএসডি জাতীয় নির্বাচনে ধানের শীষ ও তারা মার্কায় নির্বাচন করতে চায়। গতকাল রোববার প্রধান নির্বাচন কমিশনার বরাবর দলের সাধারণ সম্পাদক আবদুল মতিন স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে বলা হয়, “আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জেএসডি যদি অংশগ্রহণ করে তাহলে ‘জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের’ শরিক দল হিসেবে জেএসডির যৌথভাবে মনোনীত প্রার্থীরা নিবন্ধিত রাজনৈতিক দল বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল-বিএনপির ‘ধানের শীষ’ প্রতীক নিয়ে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবে। যৌথভাবে মনোনীত প্রার্থী ছাড়া জেএসডির দলীয়ভাবে মনোনীত প্রার্থীরা জেএসডির সংরক্ষিত প্রতীক ‘তারা’ মার্কা নিয়ে অংশগ্রহণ করবে।”

গামছার পাশাপাশি ঐক্যফ্রন্টের প্রতীক নেবে কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ : বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকীর নেতৃত্বাধীন কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দলীয় প্রতীক গামছা অথবা জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের মনোনীত প্রতীক ব্যবহার করতে চায়। এ বিষয়ে গতকাল রোববার সিইসি বরাবর দলের সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান তালুকদার স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে বলা হয়েছে, নির্বাচনে কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শরিক দল হিসেবে অংশ নেবে। নির্বাচনে দলীয় প্রতীক গামছা অথবা জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের মনোনীত প্রতীক ব্যবহার করা হবে।

ধানের শীষ এবং গরুর গাড়ি প্রতীকে বিজেপি : ২০ দলীয় জোটভুক্ত বাংলাদেশ জতীয় পার্টি-বিজেপি আসন্ন নির্বাচনে জোটগতভাবে অংশ নেবে। বিএনপির প্রতীক ধানের শীষ এবং কোনো কোনো আসনে দলীয় প্রতীক গরুর গাড়ি নিয়ে নির্বাচনে অংশ নিতে আগ্রহী এ দল। গতকাল দলের চেয়ারম্যান আন্দালিব রহমান স্বাক্ষরিত এ-সংক্রান্ত চিঠি সিইসি বরাবর পৌঁছে দেন দলের মহাসচিব আবদুল মতিন সাউদ।

১৪ দলীয় প্রতীক চায় জাতীয় পার্টি (জেপি) : আসন্ন সংসদ নির্বাচনে জাতীয় পার্টি (জেপি) ১৪ দলীয় জোটের শরিক দল হিসেবে নির্বাচনে অংশ নেবে। এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে দলের চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন মঞ্জুর পক্ষ থেকে চিঠি দিয়ে সিইসিকে অনুরোধ করা হয়েছে।

তৃণমূল বিএনপি ১৪ দলীয় জোটে : ১৪ দলীয় জোটের অন্তর্ভুক্ত হয়ে জাতীয় নির্বাচনে অংশ নেবে ‘তৃণমূল বিএনপি’ এবং তৃণমূল বিএনপির নেতৃত্বাধীন বাংলাদেশ জাতীয় জোট (বাংলাদেশ ন্যাশনাল অ্যালায়েন্স) বিএনএ। গতকাল দল ও জোটের চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার নাজমুল হুদা স্বাক্ষরিত এ-সংক্রান্ত চিঠি সিইসি বরাবর ইসি কার্যালয়ে জমা দেওয়া হয়। যদিও তাদের নিবন্ধন নেই।

মোমবাতি প্রতীকে ইসলামী ফ্রন্ট : জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের নেতৃত্বাধীন সম্মিলিত জাতীয় জোটভুক্ত বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্ট আসন্ন সংসদ নির্বাচনে দলীয় প্রতীক মোমবাতি নিয়ে অংশ নেবে। গতকাল দলের মহাসচিব এম এ মতিন স্বাক্ষরিত এ-সংক্রান্ত চিঠি সিইসি বরাবর পাঠানো হয়েছে।

একই প্রতীকে ভোটের ভবিষ্যৎ জানতে চায় যুক্তফ্রন্ট : এদিকে বিকল্পধারা বাংলাদেশের সাংগঠনিক সম্পাদক ও কেন্দ্রীয় যুক্তফ্রন্ট নেতা ব্যারিস্টার ওমর ফারুক ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে জোটবদ্ধ দলগুলোর নির্বাচনে তাদের নিজ নিজ প্রতীক বা একই মার্কার ব্যবহারে পরবর্তী নির্বাচনে প্রভাব পড়বে কি-না তা জানতে চিঠি দিয়েছেন। গতকাল রোববার ইসিতে এ বিষয়ে সচিবের কাছে এক চিঠির মাধ্যমে তিনি এর ব্যাখ্যা জানতে চেয়েছেন। চিঠিতে বলা হয়েছে, তারা- চারটি নিবন্ধিত দলের সমন্বয়ে গঠিত যুক্তফ্রন্ট- এগারোতম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সাবেক রাষ্ট্রপতি ও যুক্তফ্রন্টের চেয়ারম্যান অধ্যাপক একিউএম বদরুদ্দোজা চৌধুরীর নেতৃত্বে অংশ নিতে যাচ্ছেন। এ ক্ষেত্রে যদি সব শরিক দল একই মার্কায় নির্বাচন করে, যেমন- কুলা মার্কা, তা হলে অন্যান্য নিবন্ধিত শরিক দলের নিজস্ব মার্কার ওপর পরবর্তী নির্বাচনে এর কোনোরকম বিরূপ প্রভাব পড়বে কি-না বা তারা যদি নিজস্ব মার্কায় নির্বাচন করে, তাহলে জোটভুক্ত মার্কার ওপর ভবিষ্যতে কোনো প্রভাব পড়বে কি-না।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ