প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

১৪ দলে থাকা বাম শরিকরা ৩২টি আসনে প্রার্থী দেবে

রফিক আহমেদ : আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন ১৪ দলের শরিক বামপন্থী নেতারা বলেছেন, অবশ্যই আওয়ামী লীগের কাছে ৮৬টি আসন চাইব। বৃহত্তর স্বার্থে সমঝোতার মাধ্যমে কিছু আসনে ছাড় দিতেও রাজি। তবে, তারা ৩০ থেকে ৩২টি আসনে থাকার চিন্তা ভাবনা করছেন। এ আসন থেকে সরে আসার কোন সুযোগ নেই বলে জানান নেতারা। রোববার ১৪ দলে থাকা বাম শরিক দলের নেতাদের সঙ্গে যোগাযোগ করলে তারা এ কথা বলেন।

বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক ফজলে হোসেন বাদশা এমপি বলেছেন, দশম জাতীয় সংসদে আমাদের দলের ৭ জন সংসদ সদস্য রয়েছে। আমরা এবার ১৪ দল থেকে ১০ জন প্রার্থীকে মনোনয়ন দেয়ার প্রস্তাব করব। আমরা দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে ৭৫ জন প্রার্থীর যাচাই বাচাই করে ৪০ জনকে চূড়ান্ত রেখেছি। তবে, ১৪ দল থেকে আমাদের কতজন প্রার্থীকে মনোনয়ন দেয়া হবে, সেই বিষয়টি ১৪ দলের নীতি নির্ধারকদের ওপর নির্ভর করবে।

জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল- জাসদ সাধারণ সম্পাদক শিরিন আখতার বলেছেন, দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ১৪ দল থেকে জাসদের ৬ জন প্রার্থী মনোয়ন পেয়েছে। আমরা এবার আমাদের দল থেকে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ১২ জনকে মনোনয়ন দেয়ার প্রত্যাশা করছি। জানা গেছে, জাসদের সভাপতি হাসানুল হক ইনু, সাধারণ সম্পাদক শিরীন আখতার, কার্যকরী সভাপতি রবিউল আলম, রেজাউল করিম তানসেন ও সহ-সভাপতি অ্যাড. শাহ জিকরুল আহমেদসহ সারাদেশ দলের অনেক প্রার্থী রয়েছেন।

বাংলাদেশ জাসদ এর সভাপতি শরীফ নূরুল আম্বিয়া বলেন, আমরা একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশগ্রহণ করার জন্য ৩০ জন প্রার্থীর খসড়া তালিকা প্রস্তুত করেছি। আমরা ১৪ দল নীতি নির্ধারকদের কাছে সন্তোষ আসন চাইব।

১৪ দলের শরিক দল ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি- ন্যাপ সাধারণ সম্পাদক এনামুল হক বলেন, আমাদের দল থেকে ৭০ জন প্রার্থী নির্বাচন করতে চায়। আমরা মহাজোটের কাছে ১৫ জন প্রার্থীর মনোনয়ন চাইব। বর্তমান জাতীয় সংসদে আমাদের একজন মহিলা সংসদ সদস্য রয়েছে।

বাংলাদেশের সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়ূয়া বলেন, আমরা সাম্যবাদী দল থেকে এবার ১৪ দলের কাছে ৫ আসনে মনোনয়ন চাইব। তবে, একজন প্রার্থীকে মনোনয়ন দিলেও আমরা মেনে নেব। গণতন্ত্রী পার্টির সাধারণ সম্পাদক ডা. শাহাদাৎ হোসেন বলেন, আমাদের দলের ২৬ জনের তালিকা রয়েছে। আমরা ১৪ দলের কাছে ১০ প্রার্থীর মনোনয়ন প্রত্যাশা করছি। তবে, ৫ জন প্রার্থীর মনোনয়ন পাওয়ার জন্য চেষ্টা করব।

বাংলাদেশের কমিউনিস্ট লীগের আহবায়ক অশীষ বরণ রায় বলেন, আমাদের দলের কুমিল্লা-৬, গোপালগঞ্জ-১ ও ২ এবং টাঙ্গাইল-৮ আসনেসহ ৩ জন সংসদ সদস্য প্রার্থী রয়েছেন। এ আসনের মধ্যে ১৪ দল থেকে গোপালঞ্জের একটি আসনের প্রার্থীকে মনোয়ন দিলে তখন আর আমাদের চাওয়া পাওয়ার কিছুই থাকবে না। বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল-বাসদ আহবায়ক রেজাউর রশীদ খান বলেন, আমরা ১৪ আসনে প্রার্থী দিচ্ছি। কিন্তু সিরাজগঞ্জ-৫ ও ৬ আসন এবং সুনামগঞ্জ-২ (দিরাই-সালনা) এ দু’আসনে চূড়ান্ত প্রার্থী দেব।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ