প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

তড়িঘড়ি ঠিক হয়নি, তবে এখনো সুযোগ আছে

আবু সাঈদ খান : একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার জন্য নির্বাচন কমিশন আরো কিছুদিন অপেক্ষা করতে পারতো এবং অপেক্ষা করাটাই সঙ্গত ছিল। যেহেতু আলোচনা চলছে সেহেতু এই আলোচনার মধ্যে তড়িঘড়ি করে তফসিল ঘোষণা করা ঠিক হয়নি।

কেননা, যেনোতেনোভাবে একটা নির্বাচন করা নির্বাচন কমিশনের কাজ নয়। একটা অর্থবহ অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন করা দরকার। নির্বাচন কমিশনের প্রধান স্টকহোল্ডার হচ্ছে রাজনৈতিক দল। তাই রাজনৈতিক দলগুলো যেহেতু এখনো আলোচনার পর্দা তুলে দেয়নি। সেহেতু নির্বাচন কমিশনের আরো ১০-১৫ দিন অপেক্ষা করলে কোনো অসুবিধা হতো না।

তবে নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হয়েছে তার মানে এই নয় আর আলোচনা হতে পারে না, আলোচনা হতে পারে। এখনো সমঝোতায় পৌঁছানো সম্ভাব। কিন্তু ঐক্যফ্রন্টের পক্ষ থেকে যে প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে এই প্রস্তাব অনুসারে সমঝোতায় পৌঁছানোর কোনো সম্ভাবনা নেই। তারা ঘুরে ফিরে আবার আবার তত্ত্ব¡াবধায়ক সরকারে এসেছে। তত্ত্বাবধায়কের জন্য সংবিধান পরিবর্তন দরকার।

আমরা আশা করেছিলাম আলোচনার মাধ্যমে সরকার এবং ঐক্যফ্রন্ট একটা ঐকমত্যে যেতে পারবে। কিন্তু সেটা হয়নি। তবে সরকার এবং বিরোধিরা আলোচনা করে এখনো সমঝোতায় যেতে পারে। সেজন্য দুই পক্ষকেই ছাড় দিতে হবে, ছাড় দিলে এই সময়ের মধ্যেই একটা সমঝোতা করে সমাধানে পৌঁছানো সম্ভাব।

পরিচিতি : সিনিয়র সাংবাদিক/মতামত গ্রহণ : লিয়ন মীর/সম্পাদনা : রেআ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ