প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

তিন বাহিনীর স্যালুটের ভঙ্গি কেন তিন  রকম?

নিউজ পোর্টাল থেকে নেয়া

 

সামরিক স্যালুটকে সৈনিকদের মধ্যকার সম্মান ও আস্থার অঙ্গভঙ্গি হিসেবেই ধরা হয়। তিন বাহিনীর কোনও অনুষ্ঠানে আংশগ্রহণ করে থাকলে, নিশ্চয় লক্ষ্য করেছেন, তিন বাহিনীর স্যালুট করার ভঙ্গি তিন রকম। এই তিন বাহিনী সম্পূর্ণ ভিন্নভাবে স্যালুট করে থাকে। নৌবাহিনী, বিমানবাহিনী ও সেনাবাহিনীর স্যালুটের ভঙ্গি একদমই আলাদা। আর তিন বাহিনীর সর্বোচ্চ সম্মান প্রদর্শনের রীতি স্যালুট। আসুন আজ জেনে নেই সেনাবাহিনী, নৌবাহিনী এবং বিমানবাহিনীর ভিন্ন ভিন্ন স্যালুটের পেছনের গল্প।

সেনাবাহিনীর স্যালুট : সেনাবাহিনীর স্যালুট দেবার ভঙ্গি হলো তাদের সবগুলো আঙ্গুল একসাথে লাগানো থাকবে, হাতের তালু থাকবে সামনের দিকে যেন সবাই দেখতে পায় এবং মাঝখানের আঙ্গুল স্পর্শ করবে তাদের গৌরবোজ্জ্বল ক্যাপ এবং তা থাকবে তাদের চোখের ভ্রুর সমান্তরাল। এই ভঙ্গি শুধু একে অপরের মধ্যে বিশ্বাসই স্থাপন করে না বরং এই ভঙ্গি বলে দেয় সৈনিকদের মধ্যে আদর্শের কোন ঘাটতি নেই। এবং তাদের কাছে কোন অস্ত্রও লুকানো নেই।

নৌবাহিনীর স্যালুট : নৌবাহিনীর স্যালুট দেয়ার ভঙ্গিতে হাতের তালু থাকবে মাটির দিকে মুখ করা এবং কপাল থেকে হাতের কব্জি থাকবে ৯০ ডিগ্রি অ্যাঙ্গেলে। হাতের তালুকে মাটিমুখি রাখার কারণ হলো, তাদের হাতের ময়লা যাতে লুকিয়ে ফেলা যায় যা তাদের জাহাজে কাজ করার সময় লাগে। এটা একটা সম্মান প্রদর্শনকারী ভঙ্গি।

বিমানবাহিনীর স্যালুট : বিমানবাহিনীর স্যালুট অপর দুই বাহিনী থেকে ভিন্ন। হাতের তালু ৪৫ ডিগ্রি হয়ে মাটিমুখি থাকবে। এবং এই স্যালুট দেয়ার প্রাক্কালে তাদের হাত উঠবে নৌবাহিনী এবং সেনাবাহিনীর যতটুকু হাত ওঠায় তার মধ্যবর্তী অবস্থায়।

সম্পাদনা : রেজাউল আহসান