প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

অটিজমের জন্য দায়ী বায়ুদূষণ

মুসফিরাহ হাবীব : বায়ুদূষণের কারণে মানুষের অনেক ক্ষতির কথা আগেই শোনা গেছে। এবার নতুন এক গবেষণায় দাবি করা হয়েছে, বায়ুদূষণের কারণেও শিশুর অটিজম হতে পারে।

গর্ভবতী মা উচ্চ মাত্রার বায়ুদূষণের শিকার হলে শিশুর অটিজম হওয়ার ঝুঁকি দ্বিগুণ বেড়ে যায়। ‘হার্ভার্ড স্কুল অব পাবলিক হেলথ’ এর বিজ্ঞানীরা একথা জানিয়েছেন।

‘এনভায়রনমেন্টাল হেলথ পার্সপেকটিভ’ জার্নালের অনলাইন সংস্করণে প্রকাশিত গবেষণা প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আগুন, যানবাহন কিংবা শিল্প-কলকারখানার ধোঁয়ায় দূষিত বাতাসে ভেসে বেড়ানো সুক্ষ্ম কণা যতবেশি দেহে প্রবেশ করবে ঝুঁকি ততই বেশি হবে।

বিশেষ করে মা গর্ভাবস্থার তিনমাসের সময় বায়ুদূষণের শিকার হলে শিশুর অটিজম হওয়ার ঝুঁকি দ্বিগুণ বাড়ে বলেই জানাচ্ছেন গবেষকরা।

বায়ুদূষণের সঙ্গে অটিজম স্পেকট্রাম ডিজঅর্ডারের যোগসূত্র গবেষকরা খুঁজে পেয়েছেন। তারা বলছেন, শৈশবেই বায়ুদূষণের শিকার হলে সমস্যা হতে পারে। কারণ, ছোটবেলায় মানুষের স্নায়ুতন্ত্রের পূর্ণ বিকাশ ঘটে না।
গর্ভাবস্থায় কিংবা জন্মের প্রথম বছরে শিশু বায়ুদূষণের শিকার হলে মস্তিষ্কের বিকাশ বাধাগ্রস্ত হতে পারে। এক স্নায়ুর সঙ্গে আরেক স্নায়ুর সংযোগ ব্যবস্থা ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে দেখা দিতে পারে অটিজম।
শিশুরা বেশি বায়ুদূষণের শিকার হলে তাদের অটিজমে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি বাড়ে। দুই বা তিন বছর বয়সী শিশুর ক্ষেত্রে এ ঝুঁকির মাত্রা বেশি।

বাতাসে ভেসে বেড়ানো কোনো একটি নির্দিষ্ট দূষিত পদার্থও কোনো কোনো ক্ষেত্রে অটিজমের কারণ হতে পারে। বাতাসে ডাইঅক্সিনের উপস্থিতি কিংবা কীটনাশক দূষণেও হতে পারে অটিজম।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ