প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

গণতন্ত্র হত্যার উৎসব চলছে : রিজভী

মহসীন কবির ও শিমুল মাহমুদ : মনোনয়ন ফরম বিক্রির মাধ্যমে গণতন্ত্র হত্যার উৎসব চলছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী।
শনিবার রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ মন্তব্য করেন।

রিজভী বলেন, একতরফা তফসিল ঘোষণার পর সারাদেশে বিষাদঘন পরিবেশ বিরাজ করছে। ইতোমধ্যে নির্বাচন নিয়ে সংলাপের নামে সরকারী প্রতারণায় দেশবাসী বিস্মিত ও হতবাক।

তিনি বলেন, অবাধ, সুষ্ঠু নির্বাচনের উল্টো পথে হাঁটে আওয়ামী লীগ। আওয়ামী লীগ কখনোই প্রতিযোগিতামূলক অবাধ নির্বাচনে বিশ্বাস করে না। নিজেদের স্বার্থে যখন যা ইচ্ছা তাই তারা করতে পারে। তারাই তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থার জন্য আন্দোলন করেছে, আবার তারাই সংবিধান থেকে সেটি মুছে দিয়েছে।

বিএনপির এ মুখপাত্র বলেন, কোন আধুনিক সভ্য রাজনৈতিক দল; একের পর এক প্রতিশ্রুতি ভঙ্গের বখাটে আচরণ করতে পারে না। এই যে জনমতকে তাচ্ছিল্য করা, এর মধ্য দিয়েই প্রমাণিত হয়-সেই ব্যর্থ বাকশালে ফিরে যেতেই যতো আয়োজন করা হচ্ছে। সংলাপ, নির্বাচন, তফসিল ঘোষণা সবই তামাশার নামান্তর মাত্র।

বিএনপির এ মুখপাত্র বলেন, অবৈধ ক্ষমতাসীনরা জনগণের দাবি মানছে না। ৭ দফা দাবিকে অগ্রাহ্য করেই একতরফা নির্বাচনের পথে এগিয়ে যাচ্ছে তারা। চিরস্থায়ীভাবে ক্ষমতায় থাকার জন্যই বছরের পর বছর ধরে মিথ্যা মামলা-মোকদ্দমা-গ্রেফতার-হত্যা-গুপ্তহত্যা-ক্রসফায়ারের মতো পৈশাচিক নির্মমতাকে কাজে লাগানো হয়েছে বিরোধী দল দমনে।

নির্বাচন কমিশনের সমালোচনা করে রিজভী বলেন, শেখ হাসিনাকে ক্ষমতায় রাখতেই নির্বাচন কমিশন যাবতীয় কার্যক্রম চালাচ্ছে। এইজন্য আগামী নির্বাচনকে প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক করার বা নির্বাচনী মাঠ সমতল করার কোনো গরজ বর্তমান নির্বাচন কমিশনের নেই। আর সেজন্যই শেখ হাসিনাকে ক্ষমতায় রাখার স্বার্থে একতরফা নির্বাচনের জন্য তাড়াহুড়ো করে কমিশন তফসিল ঘোষণা করেছে। এই ঘোষণায় সারাদেশের ভোটারদের মুড-অফ, দেশের জনগণ নির্বিন্ন ও হতাশ।