প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

শীত নিবারণে কেনা হচ্ছে সাড়ে ৭ লাখ কম্বল

ডেস্ক রিপোর্ট : সরকার ৫৪ কোটি ৯৯ হাজার টাকা ব্যয়ে ৭ লাখ ৪০ হাজার ৬৪০টি কম্বল কেনার উদ্যোগ নিয়েছে। এবছর দেশে শীতের প্রকোপ ভয়াবহ রূপ নিতে পারে এমন আশঙ্কা থেকে ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয় শীতার্ত, অসহায় ও দুঃস্থ মানুষের মাঝে বিনামূল্যে বিতরণের জন্য এসব কম্বল কিনবে।

বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে সরকারি ক্রয়সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠকে এ সংক্রান্ত একটি প্রস্তাব উপত্থাপন করা হবে। সভায় অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত সভাপতিত্ব করবেন। মোট পাঁচটি লটে এসব কম্বল ক্রয় করা হবে বলে সূত্র জানিয়েছে।

প্রস্তাব অনুযায়ী, প্রতিটি কম্বলের সর্বনিম্ন দাম ধরা হয়েছে ৭৪১ টাকা থেকে ৭৪৪ টাকা। সর্বনিম্ন পাঁচটি দরদাতা প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে ৫ লটে এসব কম্বল কেনা হবে। প্রতিষ্ঠানগুলো হলো- মেসার্স তালুকদার অ্যান্ড কোম্পানি, স্ট্যান্ডার বিজনেস লাইন, মের্সাস প্রভাতী অ্যান্ড কোম্পানি, মের্সাস কাজলা ট্রেডিং, মের্সাস তালুকদার অ্যান্ড কোম্পানি।

ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, আবহাওয়াবিদরা আশঙ্কা করছেন-গত কয়েক বছরের চেয়ে এ বছর শীত কিছুটা তীব্র হবে। বিশেষ করে, প্রশান্ত মহাসাগরে লা নিনার উদ্ভব হলে স্বাভাবিকের চেয়ে একটু বেশি ঠান্ডা পড়বে এবং অতি বৃষ্টি হতে পারে। এ ছাড়া পূর্ব প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে সমুদ্র পৃষ্ঠের তাপমাত্রা স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি নিচে নেমে গেলে আবহাওয়া অস্বাভাবিক পরিবর্তন হতে পারে। এর প্রভাব সারা বাংলাদেশসহ সারা বিশ্বেও পড়তে পারে। আবহাওয়াগত কারণে চলতি বছরের জানুয়ারি মাসে অল্প কয়েকদিন তীব্র শীত পড়তে পারে। ফলে ওই আশঙ্কা থেকে এসব কম্বল কেনার পরিকল্পনা করেছে মন্ত্রণালয়।

সাধারণত বাংলাদেশে কয়েক বছর ধরে অক্টোবর মাসে শীত অনুভূত হয় না। কিন্তু চলতি বছরের অক্টোবর মাস কিছুটা ব্যতিক্রম। গ্রাম এলাকায় এখনি সন্ধ্যার পর সামান্য ঠান্ডা অনুভূত হচ্ছে। আর শেষ রাতে শীতের তীব্রতা বাড়ছে। এসব লক্ষণ দেখে আবহাওয়া বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, আসন্ন শীত দীর্ঘ হতে পারে।

মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, সম্প্রতি কম্বল কিনতে দরপত্র আহ্বান করা হলে ৪১টি আবেদন জমা পড়ে। এর মধ্যে কাগজপত্র ও কম্বলের গুণগত মান যাচাই করে ৫টি লটের জন্য ৫টি সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে ক্রয় কার্যক্রম সম্পন্ন করা হবে। সূত্র : রাইজিংবিডি ডট কম

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ