Skip to main content

আগস্টে মার্কিন সয়াবিনের বড় ক্রেতা ছিল ইরান

রাশিদ রিয়াজ : মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ইরানের ওপর একতরফা বাণিজ্যিক নিষেধাজ্ঞা দেওয়ার পরও দেশটি গত আগস্টে সবচেয়ে বেশি আমেরিকান সয়াবিন কিনেছে। বাল্টিক এন্ড ইন্টারন্যাশনাল ম্যারিটাইমস কাউন্সিল বলছে, চীনে মার্কিন সয়াবিন রফতানি ৩১ ভাগ কমে যাওয়ার পর ইরান যুক্তরাষ্ট্র থেকে পণ্যটি আমদানি বাড়িয়ে দেয়। বিশ্বের সবচেয়ে বড় আন্তর্জাতিক শিপিং এ্যাসোসিয়েশন বা ওই কাউন্সিল বলছে, গত ৮ মাসে চীনের মার্কিন সয়াবিন আমদানি হ্রাস পাওয়ার পর ইরান আগস্টে ৯৫ ভাগ মার্কিন সয়াবিন কিনে নেয়। চীনের প্রধান সয়াবিন উৎস ছিল যুক্তরাষ্ট্র এবং বাণিজ্য যুদ্ধের জন্যে এ চিত্র পাল্টো যাচ্ছে। চীন প্রতিবছর যুক্তরাষ্ট্র থেকে ৩৫.৭ মিলিয়ন টন সয়াবিন কিনত। মেহর গত আগস্টে চীনে মাত্র ৬৭ হাজার টন মার্কিন সয়াবিন রফতানি হয়েছে। অর্থাৎ আগের বছরের তুলনায় তা কমেছে ৯৫ শতাংশ। ২০১৬ সালের জানুয়ারি থেকে এ বছরের জুলাই পর্যন্ত যেখানে ৮২ হাজার টন পণ্যবাহী একটি মার্কিন জাহাজ ইরানে গিয়েছে সেখানে এ বছরের আগস্ট ৪ লাখ ১৪ হাজার টনের পণ্য নিয়ে ৫টি জাহাজ ইরানের বন্দরে ভিড়েছে। এসব মার্কিন জাহাজে মার্কিন সয়াবিন ছিল যা যুক্তরাষ্ট্রের সয়াবিন রফতানির ১৩.২ শতাংশ। এদিকে ব্লুমবার্গ বলছে গত পহেলা নভেম্বর আরেকটি মার্কিন জাহাজ সয়াবিন নিয়ে ইরান রওনা হয়েছে। এ জাহাজে সয়াবিন রয়েছে ৫৬ হাজার ৯৫১ টন। গত জুলাই থেকে যুক্তরাষ্ট্র থেকে এটি ১৩তম জাহাজের ইরান যাত্রা।

অন্যান্য সংবাদ