প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সংলাপ শেষে কোন জোট সুবিধাজনক অবস্থানে?

আশিক রহমান : ১ নভেম্বর শুরু হওয়া সংলাপ পর্ব শেষ হয়েছে ৭ নভেম্বর। প্রশ্ন এসেছে, সংলাপে শেষের ফল কী। কার কী অর্জন? কোন জোট সুবিধাজনক অবস্থানে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন চৌদ্দদলীয় জোট নাকি জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট? রাজনৈতিক দলগুলো নিজেদের একক অর্জন বা সফলতার কথা বললেও বিশ্লেষকেরা বলছেন, সংলাপে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের ভাবমূর্তি উন্নত হয়েছে। একইসঙ্গে সরকারদলীয় জোটেরও। গবেষক ও রাজনৈতিক বিশ্লেষক আফসান চৌধুরী মনে করেন, বিএনপি আগের চেয়ে নরম দল হিসেবে সামনে এসেছে। মারপিট না করে আলোচনা করেছে। এটা তাদের অর্জন।

সরকার যে আলোচনা করতে রাজি হয়েছে, এটা তাদের জন্যও অর্জন। পঞ্চাশ বছরে যে সমস্যার সমধান হয়নি, সেটা কী দুয়েকদিনের আলোচনায় সম্ভব? তিনি বলেন, সংলাপের অর্জন রাজনীতিকদের মধ্যে কথা বিনিময়। যেটা অনেকদিন অনুপস্থিত ছিলো। সেটা সংলাপের মধ্যদিয়ে কিছুটা হলেও স্বস্তি মিলেছে মানুষের মধ্যে। আওয়ামী লীগ দেখানোর চেষ্টা করছে, দেখো, আমরা কতো উদার, সবার সঙ্গে আলোচনা করছি। বিএনপি বলছে, দেখো, আমরা তাদের কাছে চেয়েছি, কিন্তু তারা মানছে না। কতোটা অগণতান্ত্রিক। সংবাদটা আসলে ভোটারদের জন্য।

লেখক ও গবেষক মহিউদ্দিন আহমদ বলেন, বাইরে থেকে বলা মুশকিল যে, সুবিধাজনক অবস্থায় বা চাপে সরকারদলীয় জোট নাকি ঐকফ্রন্ট? ভেতরে ভেতরে কী হচ্ছে বাইরে থেকে বোঝা যাবে না। তবে দৃশমান কথাবার্তা ও কর্মকাণ্ডে যেটুকু বোঝায় যাচ্ছে আওয়ামী লীগ দলীয় চৌদ্দদলীয় জোট ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট উভয় উভয়কে চাপে রাখতে সক্ষম হয়েছে।

তিনি বলেন, সরকার পরিষ্কার বলে দিয়েছে, সংবিধানের বাইরে তারা যাবে না। আবার প্রধানমন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন স্থগিত দেখে মনে হচ্ছে, সরকার আরও সময় নিচ্ছে। ফলে উভয়ের প্রতি উভয়ের চাপটি আছে এখনো। আমার মনে হয়, সরকার এটা উপলব্ধি করে যে, সবাইকে নিয়ে নির্বাচন করতে পারলে সেটা অনেক ভালো হবে। সবার কাছে গ্রহণযোগ্যতা পাবে। কারণ সবাই নির্বাচনে না এলে নির্বাচন প্রশ্ন থেকেই যাবে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ