প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

প্রধানমন্ত্রীর কাছে আমরা যা বলে এসেছি

ফিরোজ আহমেদ : পরিস্থিতির আশু উত্তরণের জন্য প্রয়োজন সামনের নির্বাচন গ্রহণযোগ্যভাবে আয়োজনের প্রয়োজনীয় উদ্যোগ। এটা স্বল্প মেয়াদী, কিন্তু জরুরি প্রয়োজনীয় সমাধান। সকারের পদত্যাগ, মন্ত্রী সভা ভেঙে দেওয়া, সংসদ বাতিল ও নির্বাচন কমিশন পুনর্গঠন তার জন্য গুরুত্বপূর্ণ। এগুলো সংবিধানের মধ্যে থেকেই সম্ভব। কিন্তু আমরা কী বারবার, প্রতি পাঁচ বছর পরপর এই সঙ্কটে জাতিকে ফেলতে থাকবো?

দীর্ঘ মেয়াদে এই সঙ্কট থেকে বাঁচার জন্য প্রয়োজন সংবিধানের আমূল সংস্কারকে প্রধানমন্ত্রী কেন্দ্রিক ক্ষমতাকাঠামোর বদল। দুই. রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠানগুলোকে প্রধানমন্ত্রী কেন্দ্রিক ক্ষমতা কাঠামো থেকে মুক্ত করে এগুলোর নিয়োগ, বদলি, পদোন্নতি স্বাধীন করা, তাদের ক্ষমতাবান করা এবং একইসঙ্গে ব্যর্থতার জন্য জবাবদিহিতার আওতায় আনা। এটি দীর্ঘ মেয়াদের লড়াই। এগুলোর জন্য প্রয়োজন সংবিধানের প্রয়োজনীয় সংস্কার। দরকার রাষ্ট্রের সাথে নাগরিকের নতুন চুক্তি।

মোটামুটি এগুলোই আমরা প্রধানমন্ত্রীকে বলে এসেছি। কথা আদৌ না শোনার জায়গা থেকে তারা সংলাপে এসেছেন। এটুকু অন্তত অগ্রগতি। মাঠের লড়াইতে থেকেই বাকিটা আদায় করতে হবে।

লেখক : কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য, গণসংহতি আন্দোলন। ফেসবুক থেকে

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ