প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ঋণ খেলাপিদের সংসদ নির্বাচন নয়: নাগরিক সমাজ সংগঠন

মোহাম্মদ রুবেল: জনগণের অর্থ লুটপাঠকারীদেরকে রাজনৈতিক ভাবে আশ্রয়-প্রশ্রয় দেওয়া বন্ধসহ ঋণ খেলাপি এবং খেলাপি ঋণ নবায়নকারীদের জাতীয় নির্বাচনে অংশগ্রহণের সুযোগ না দেওযার আহ্ববান জানিয়েছে অধিকার ভিত্তিক ৩২টি নাগরিক সমাজ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

রাজনৈতিক দলের নির্বাচনী ইশতেহারে ঋণ খেলাপী, টাকা পাচার ও কালো টাকা রোধের সুস্পষ্ট ঘোষণা ও আগামী জাতীয় নির্বাচনে মনোনয়ন প্রর্থীদের নিজের ও পারিবারের ঋণসহ সকল সম্পদের বিবরণী নির্বাচনের পূর্বে প্রকাশ করারও দাবি জানানো হয় মানববন্ধন থেকে।

বৃহস্পতিবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে অনুষ্ঠিত এক মানব বন্ধনথেকে অধিকার ভিত্তিক ৩২টি নাগরিক সমাজ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ এসব আহ্ববান জানান। সঞ্চালনায় ছিলেন ইক্যুইটিবিডি এর মোস্তফা কামাল আকন্দ। মানববন্ধন আয়োজনে আরও সহযোগিতায় ছিলেন, গ্লোবাল এ্যাকশন উইক অব এ্যাকশন উপলক্ষে ট্যাক্স এন্ড ফিন্যান্সিয়াল জাস্টিস এশিয়া, গ্লোবাল এলায়েন্স ফর ট্যাক্স জাস্টিস।

ইকিউটি এন্ড জাস্টিস ওর্য়াকিং গ্রুপের সদস্য সৈয়দ আমিনুল হক বলেন, বিগত ৪৭ বছরে আমাদের দেশের অর্থ লুটেরারদের রাষ্ট্রীয় পৃষ্টপোষকতা দেওয়া হয়েছে। লুটপাটকারীরা দেশের টাকা পাঁচার করছে মালয়েশিয়া, সিঙ্গাপুর সহ বিভিন্ন দেশে। এই লুটেরা শ্রেণী আমাদের রাজনীতিও গ্রাস করছে।

তিনি আরও জানান, গ্লোবাল ফিন্যান্সিয়াল ইন্টেগ্রিটি রিপোর্ট ২০১৭ অনুযায়ী বাংলাদেশ থেকে টাকাপাচার হয়ে যাওয়া এই অর্থের পরিমাণ প্রায় ৯.১১ বিলিয়ন ডলার, যা দিয়ে দুটো পদ্মা সেতু নির্মাণ করা যায়।

বাংলাদেশ ফাউন্ডেশনের শরিফুল ইসলাম বলেন, প্রবাসীরা অন্য দেশ থেকে কিছু ডলার পাঠায়, অপরদিকে ধনীরা ব্যাপক হারে সেই ডলার পাচার করে। গত পাঁচ বছরে দেশে উল্লোখ্যযোগ্যভাবে বেসরকারী বিনিয়োগ কমে গেছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী যদি এই অর্থ পাচার রোধ করতে পারেন তাহলে বিনিয়োগ কারীদের আস্থা ফিরে আসবে। বিনিযোগ বেড়ে কর্মসংস্থাানের সৃষ্টি হবে।
মানববন্ধনে আরও উপস্থিত ছিলেন, ইক্যুইটিবিডির আরকে সদস্য রেজাউল করিম চৌধুরী জাতীয় উন্নয়ন পরিষদের মাহবুব খোকন, বাঁচতে শেখা নারীর ফিরোজা বেগম, অর্পনের কাদের হাজারী, ইক্যুইটিবিডির সৈয়দ আমিনুল হক, এবং রেজাউল করিম চৌধুরী।
সম্পাদনায়: মাহবুব আলম, হুমায়ুন কবির খোকন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত