প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মার্কিন নির্বাচনের ফলাফল বিনিয়োগের সুযোগ সৃষ্টি করবে

নূর মাজিদ : সদ্য-সমাপ্ত মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যবর্তী নির্বাচনের ফলাফল দেশটির বিনিয়োগকারীদের মাঝে আস্থার পরিবেশ সৃষ্টিতে সহায়ক ভূমিকা পালন করতে পারে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স। মধ্যবর্তী নির্বাচনের ফলে মার্কিন কংগ্রেসে ডেমোক্রাট এবং রিপাবলিকানদের মধ্যে যে বিভাজন সৃষ্টি হয়েছে তার কারণে এখন থেকে মার্কিন সরকারের গৃহীত নীতিগুলো স¤পর্কে আগে থেকেই আঁচ করা বিনিয়োগকারীদের জন্য কঠিন হবে, ফলে পুঁজিবাজারের স্বাভাবিক স্থিতিশীলতা ফিরে আসাসহ বিনিয়োগ বৃদ্ধির সম্ভাবনা রয়েছে।

রয়টার্স দেশটির পুঁজি বাজারের বিনিয়োগ তহবিলগুলোর ব্যবস্থাপকদের বরাত দিয়ে জানায়, নির্বাচনের আগে পুঁজিবাজারে একটি অস্থিরতা কাজ করেছে। যা বাজারটির স্বাভাবিক বেচাকেনার গড় বাড়ালেও তা নতুন বিনিয়োগের জন্য আদর্শ পরিবেশ নয়। এসময় বিনিয়োগকারীরা নতুন করে তাদের হাতে থাকা শেয়ার আরও বেশি করে ক্রয় করে রি-স্টক করেন, অন্যদিকে আরেক ধরণের বিনিয়োগকারীরা তাদের সিংহভাগ বিনিয়োগ নেই এমন ধরণের কো¤পানির শেয়ার বিক্রয় করে দেন। এই ধরণের পরিবেশে মার্কিন পুঁজিবাজারের বিনিয়োগ তহবিলগুলোও নতুন করে বিনিয়োগ করার ব্যাপারে দ্বিধান্বিত অবস্থায় ছিলো। তবে এই আবহ পরিবর্তনে গভীর প্রভাব ফেলেছে মধ্যবর্তী নির্বাচনের ফলাফল। এখন ডেমোক্রাটরা কংগ্রেস এবং রিপাবলিকানগণ উচ্চকক্ষ সিনেটের সিংহভাগের নিয়ন্ত্রণ পেয়েছেন। ফলে কংগ্রেসের বাহিরে সিনেটের অনুমোদন দরকার এমন সকল গুরুত্বপূর্ণ সরকারি নীতির পরিবর্তন আঁচ করতে এখন সাধারণ বিনিয়োগকারীদের তহবিল ব্যবস্থাপকদের দূরদৃষ্টির ওপরই নির্ভর করতে হবে। অনেক সময় এই ধরণের বিনিয়োগ পরিবেশ তহবিল ব্যবস্থাপকদের পূর্বাভাষ দেয়াকেও প্রলম্বিত করতে পারে। যেমন অভ্যন্তরীন রাজনীতির মারপ্যাচে স্বাস্থ্যখাতে প্রণীত নীতি কতটুকু অগ্রাধিকার দেয়া হবে বা সামরিক ব্যয় বিবাদমান দুই দলের রাজনীতির কারণ হবে কিনা তার অগ্রিম পূর্বাভাষ দেয়া কঠিন হবে। রয়টার্স

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ