Skip to main content

অপহরণ নয়, ভারতীয় যুবকের সঙ্গে স্বেচ্ছায় গিয়েছিলেন মনিকা

শহিদুল ইসলাম, চট্টগ্রাম : চট্টগ্রামে গানের শিক্ষিকা মনিকা বড়ুয়া নিখোঁজ কিংবা অপহরণ হয়নি। সাত মাস আগে স্বেচ্ছায় কুমার মল্লিক নামে ভারতীয় এক যুবকের সঙ্গে পালিয়ে গিয়েছিলেন। চট্টগ্রাম থেকে শ্যামলী বাসে করে যশোর বেনাপোল হয়ে কৌশলে ভারতে নিয়ে যান মনিকা বড়ুয়া রাধাকে। মনিকা বড়ুয়াকে উদ্ধারের পর বৃহস্পতিবার সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের (সিএমপি) অতিরিক্ত কমিশনার (অপরাধ ও অভিযান) আমেনা বেগম। তিনি জানান, ফেসবুকের মাধ্যমে কুমার মল্লিকের সঙ্গে পরিচয় হয় মনিকা বড়ুয়ার। এর পর প্রেমে জড়িয়ে পড়েন দুইজন। এবং কৌশলে ভারতে নিয়ে যান মনিকা বড়ুয়া রাধাকে । তারা কলকাতায় একটি ফ্ল্যাট ভাড়া নিয়ে বসবাস করে আসছিলেন। মণিকা বড়ুয়া স্ব-ইচ্ছায় ভারতে পালিয়ে যাওয়ার বিষয়টি পরিবারের একাধিক সদস্য জানা সত্বেও তারা পুলিশকে সহযোগিতা না করে উল্টো মনিকা বড়ুয়া উদ্ধারের জন্য ঢাকা ও চট্টগ্রামে রাস্তায় নেমে মানবন্ধন করেছেন। তিনি জানান, মনিকা বড়ুয়া নিখোঁজ হওয়া এবং অপহরনের অভিযোগ পুলিশ গুরুত্বের সঙ্গে নিয়ে অনুসন্ধান শুরু করে। পুলিশি অনুসন্ধানে বের হয়ে আসে চাঞ্চল্যকর তথ্য। পুলিশ অনুসন্ধানে তথ্য প্রযুক্তির ব্যবহারের মাধ্যমে জানতে পারে মনিকা অপহরণ হননি। বিভিন্ন সূত্র ধরে এক সময় কমলেশের খোঁজ পাওয়া যায়। গত ৩ নভেম্বর কমলেশ তার ব্যবসায়িক কাজে কলকাতা থেকে ঢাকায় আসলে পুলিশ ঢাকার ধানমন্ডি এলাকা থেকে কমলেশকে গ্রেপ্তার করে। গ্রেপ্তারের পর কমলেশ মনিকাকে ভারত নিয়ে যাওয়া থেকে বিয়ে পর্যন্ত যাবতীয় ঘটনার স্বীকারোক্তি দেওয়ার পর কমলেশের মাধ্যমে কৌশলে মনিকাকেও বাংলাদেশে ফিরিয়ে এনে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। উল্লেখ্য, গত ১২ এপ্রিল মনিকা বড়ুয়া রাধা নগরের লালখানবাজার হাইলেভেল রোড়ের বাসা থেকে বের হয়ে আর বাসায় ফিরেননি। পরদিন ১৩ এপ্রিল নগরীর খুলশী থানায় সাধারণ ডায়রি করা হয়। অপহরণ হয়েছে এমন অভিযোগ করে২৮ এপ্রিল থানায় অপহরণ মামলা করেন মনিকার স্বামী দেবাশীষ বড়ুয়া দেবু।