প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

‘এ্যন্টি আ.লীগ ও নারী বিদ্বেষীরাই শোকরানা মাহফিলের বিরোধীতা করছে’

রিয়াজ হোসেন: বাংলাদেশ কাওমি বোর্ডের পরিচালক মাওলানা জুবায়ের আহমদ চৌধুরী বলেছেন, গোড়া পন্থি এ্যন্টি আওয়ামী লীগ ও নারী বিদ্বেষী যারা তারাই শোকরানা মাহফিলের বিরোধীতা করছে। আমরা কোন দলকে নয়, সরকার প্রধানকে সংবর্ধনা দিয়েছি।

শোকরানা মাহফিল পরবর্তী আমাদের নতুন সময়কে দেয়া সাক্ষাৎকারে তিনি এসব কথা বলেন। শোকরানা মাহফিল প্রসঙ্গে বলেন, স্বাধীনতার পর থেকে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন সরকারের কাছে সনদের দাবি জানালেও কেউ আমাদের দাবি দাওয়া গুরুত্ব দেয়নি । আওয়ামী লীগ সরকার আমাদের দাবি মেনে নিয়েছে। অতীতে যদি অন্য কেউ আমাদের এই দাবি মেনে নিত তবে তাদেরকেও আমরা এই সংবর্ধনা দিতাম। এটা নিয়ে যারা দ্বিমত করছে তার বিষয়টি তলিয়ে দেখেননি ।

মাওলানা জুবায়ের আহমদ চৌধুরী বলেন, দাওরায়ে হাদিসের স্বীকৃতি ও সমমানের সনদ লাভ করে সরকারি চাকরি করা কওমি মাদ্রাসা শিক্ষার মূল উদ্দেশ্য নয়। কেবল ধর্মীয় ক্ষেত্রে ভূমিকা রাখা। সেটা সরকারি ও বেসরকারি পর্যায়েও হতে পারে।

তিনি বলেন, সনদ লাভের পর সরকারি চাকরির ক্ষেত্রে কওমি শিক্ষার্থীদের সব চাকরি প্রার্থীদের সঙ্গে অভিন্ন প্রশ্ন পরীক্ষায় অংশ নিতে হবে। যা দাওরায়ে হাদিস বিভাগের সিলেবাস অনুকূলে নয়। এ অবস্থায় কওমি শিক্ষার্থীরা সরকারি চাকরির প্রতি শিক্ষার্থীরা বিমুখ বলে মনে করেন তিনি। তবে কেউ যদি সরকারি চাকরি করতে তাতে কোন আপত্তি নেই।

সিলেবাসে কোন পরিবর্তন আনা হবে কিনা জানতে চাইলে মাওলানা জুবায়ের আহমদ চৌধুরী বলেন, দেওবন্ধ সিলেবাসের অনুসারে ইউজিসি সে সিলেবাস দিয়েছে সেটা বহাল থাকবে । বর্তমানে অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত জাগতিক শিক্ষা রয়েছে সেটা আমরা দশম শ্রেণি পযর্ন্ত করব। তবে সাধারণ জ্ঞান ব্যাতিত বিজ্ঞানের কোন বিষয় এখানে অন্তর্ভূক্ত হবে না ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ