প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

প্রধানমন্ত্রী চাইলে অনির্বাচিত কেউ নির্বাচনের সময়ও সরকারের সদস্য হতে পারবেন : ব্যারিস্টার শফিক আহমেদ

আশিক রহমান : সাবেক আইনমন্ত্রী ব্যারিস্টার শফিক আহমেদ বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী চাইলে যোগ্য ব্যক্তিদের মধ্য থেকে অনির্বাচিত কেউ নির্বাচনের সময় সরকারের সদস্য হতে পারবেন। সংবিধানের স্পষ্টভাবে উল্লেখ আছে : ‘৫৬। (১) একজন প্রধানমন্ত্রী থাকিবেন এবং প্রধানমন্ত্রী যেরূপ নির্ধারণ করিবেন, সেইরূপ অন্যান্য মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী ও উপ-মন্ত্রী থাকিবেন। (২) প্রধানমন্ত্রী ও অন্যান্য মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী ও উপ-মন্ত্রীদিগকে রাষ্ট্রপতি নিয়োগ দান করিবেন: তবে শর্ত থাকে যে, তাঁহাদের সংখ্যার অন্যূন নয়-দশমাংশ সংসদ-সদস্যগণের মধ্য হইতে নিযুক্ত হইবেন এবং অনধিক এক-দশমাংশ সংসদ-সদস্য নির্বাচিত হইবার যোগ্য ব্যক্তিগণের মধ্য হইতে মনোনীত হইতে পারিবেন। (৩) যে সংসদ-সদস্য সংসদের সংখ্যাগরিষ্ঠ সদস্যের আস্থাভাজন বলিয়া রাষ্ট্রপতির নিকট প্রতীয়মান হইবেন, রাষ্ট্রপতি তাঁহাকে প্রধানমন্ত্রী নিয়োগ করিবেন’।

অর্থাৎ প্রধানমন্ত্রীর ইচ্ছের ওপর সবকিছু নির্ভর করে। প্রধানমন্ত্রীই ঠিক করবেন তার মন্ত্রিসভা এবং কারা থাকবেন সেখানে। কীভাবে, কাকে সদস্য করা যাবে সংবিধানে তা নেই। প্রধানমন্ত্রী চাইলে নির্বাচনের সময় মন্ত্রিসভার আকার একটু ছোটও করতে পারেন। কারণ বড় কোনো প্রজেক্ট আর হাতে নেবেন না।

এ প্রতিবেদকের সঙ্গে আলাপকালে তিনি আরও বলেন, নির্বাচনের সময়ে নির্বাচন কমিশনকে সব ধরনের সাহায্য-সহযোগিতা করবে সরকার। সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠান নির্বাচন কমিশনের অধীনে নির্বাচন হবে। কমিশনকে সাহায্য করা ছাড়া সরকারের কিছু করার নেই।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ