প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

গ্রেফতারের নির্দেশ আদালতের
জাল সনদে অফিস সহায়ক পদে চাকুরী!

মো. জয়নুল আবেদীন, আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি: জাল সনদে অফিস সহায়ক পদে চাকুরী নেয়ার অভিযোগে মোঃ ইউসুফ আলীকে গ্রেফতারের নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

মঙ্গলবার আমতলী সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মোঃ সাকিব হোসেন এ আদেশ দিয়েছেন।

জানাগেছে, ১৯৮১ সালে মো. ইউসুফ আলী আমতলী ডিগ্রী কলেজে অফিস সহায়ক পদে কুকুয়া আদর্শ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেনীতে উত্তীর্ণ পাশের সনদ দিয়ে চাকুরি নেয়। ওই সনদ দিয়ে দীর্ঘদিন চাকুরি করে আসছে সে। ২০১৬ সালে এপ্রিল মাসে আমতলী কলেজ জাতীয়করণ হয়।

ওই সময়ে সনদ যাছাইকালে অফিস সহায়ক মোঃ ইউসুফ মিয়ার চাকুরীকালের সনদটি জাল বলে সন্দেহ হয়। কলেজের অধ্যক্ষ (ভারপ্রাপ্ত) মোঃ মজিবুর রহমান এ বছর ২০ মে জাল সনদে চাকুরী নেয়ার অভিযোগ এনে আমতলী সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলা দায়ের করেন। আদালত ওই সনদটি যাছাই বাছাই করে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য পটুয়াখালী পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেষ্টিগেশন (পিবিআই) নির্দেশ দেয়। পটুয়াখালী ব্যুরো অব ইনভেষ্টিগেশনের তদন্তকারী অফিসার মো. মতিনুর রহমান ৩০ সেপ্টেম্বর অফিস সহায়ক মো. ইউসুফের সনদটি জাল বলে আদালতে অনুসন্ধান প্রতিবেদন দাখিল করেন। ওই প্রতিবেদনের প্রেক্ষিতে মঙ্গলবার আমতলী সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক সাকিব হোসেন আমতলী সরকারি কলেজের অফিস সহায়ক মো. ইউসুফ আলীর বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছেন।

আমতলী থানার ওসি মো. আলাউদ্দিন মিলন বলেন, আদালতের গ্রেফতারি পরোয়ানা এখনো পাইনি। পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ