প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সাড়ে ৩ হাজার কোটি টাকা আত্মসাত
১৬ আর্থিক প্রতিষ্ঠানের তথ্য যাচাই করছে দুদক

তরিকুল ইসলাম সুমন : দেশের ১০টি ব্যাংক ও ৬ টি আর্থিক প্রতিষ্ঠান থেকে প্রায় সাড়ে ৩ হাজার কোটি টাকার ঋণ জালিয়াতির অভিযোগ অনুসন্ধান করছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

দুদক সূত্র জানায়, চট্টগ্রামের মেসার্স এসএ গ্রুপের বিরুদ্ধে এ অভিযোগ নিয়ে গত চার মাস ধরে কাজ করছে দুদক। ১০ টি ব্যাংকের কাছ থেকে প্রতিবেদন পাওয়া গেছে। অন্য ৬টি আর্থিক প্রতিষ্ঠান থেকেও প্রতিদেন চাওয়া হয়েছে।

দুদকের উপপরিচালক ঋত্বিক সাহার নেতৃত্বে তিন সদস্যের এক অনুসন্ধানী দল এ দায়িত্ব পালন করছেন। দলের অন্য দুই সদস্য হলেন- দুদকের সহকারী পরিচালক মোহাম্মদ সিরাজুল হক ও উপসহকারী পরিচালক মুহাম্মদ জয়নাল আবেদীন।

অভিযোগে বলা হয়েছে, সাড়ে ৩ হাজার কোটি টাকার মধ্যে ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংকের আগ্রাবাদ শাখায় ৪৮১ কোটি টাকা, ইসলামী ব্যাংকের আগ্রাবাদ শাখায় ৪২৩ কোটি টাকা, ৩৩৮ কোটি টাকা পাবে ব্যাংক এশিয়ার সিডিএ শাখা ঢাকা ব্যাংকের খাতুনগঞ্জ শাখায় ২৪৭ কোটি টাকা, পূবালী ব্যাংকের আগ্রাবাদ শাখায় ২৮৮ কোটি টাকা, ন্যাশনাল ব্যাংকের আগ্রাবাদ শাখায় ২২১ কোটি, জনতা ব্যাংকের আগ্রাবাদ শাখায় ২০০ কোটি, রূপালী ব্যাংকের আগ্রাবাদ শাখায় ১৫১ কোটি, অগ্রণী ব্যাংকের লালদীঘি শাখায় ১১৮ কোটি, কৃষি ব্যাংকের ষোলশহর শাখায় ১০০ কোটি, মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংকের খাতুনগঞ্জ শাখায় সাড়ে ৫৩ কোটি, উত্তরা ব্যাংকের আগ্রাবাদ শাখায় ৫২ কোটি, প্রাইম লিজিংয়ের ৩৬ কোটি, আল-আরাফাহ্ ইসলামী ব্যাংকের আগ্রাবাদ শাখায় ১৪ কোটি টাকা ঋণ রয়েছে প্রতিষ্ঠানটির। এর বাইরে আর্থিক প্রতিষ্ঠান আইডিএলসির কাছেও বড় অংকের ঋণ রয়েছে এসএ গ্রুপের।