প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ফেসবুকে যেভাবে ছড়িয়ে গেল সাইক্লিং

হ্যাপি আক্তার : ২০১১ সালে কয়েকজন সাইক্লিস্ট নিজেদের মধ্যে যোগাযোগের জন্য শুরু করেছিলো বিডিসাইক্লিস্ট নামে একটি ফেসবুক গ্রুপ। বর্তমানে এই গ্রুপের সদস্য সংখ্যা ১ লক্ষের বেশি। ২০১৬ সালে একটি গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডও গড়েছেন গ্রুপটির সদস্যরা।

বিডি সাইক্লিস্টটা আসলে শুরু হয়েছিলো যেন ছুটির দিনে সাইকেলটা নিয়ে ঢাকার আশেপাশের জায়গায় বের হতে পারা। তখন কোঅর্ডিনেশনের জন্যই গ্রুপটা করা। খুব সন্দর জায়গায় ১০ মিনিটের মধ্যে গ্রাম-গঞ্জে চলে যাওয়া। এসব জিনিজগুলো যখন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ হতে থাকে সেখানে থেকে বিডি সাইক্লিস্টের বড় হয়ে উঠা। ২০১৬ সালে সবচেয়ে লম্বা চলমান সাইকেল লেনের বিশ্ব রেকর্ড করে বিডি সাইক্লিস্ট।

বিডি সাইক্লিস্টের উদ্যোক্তা মোজাম্মেল হকের উদ্যোগে ২০১১ সালে চালু হওয়ায় মেয়েরা এখন সাইক্লিং করে, স্কুটি চালায় কারণ তারা গণপরিবহন ব্যবহার করতে চায় না। বর্তমানে বিডি সাইক্লিস্টের সদস্য সংখ্যা ১,২৪০০০ জন।

বিডি সাইক্লিস্টে আগ্রহী হয়ে সাইকেল চালাচ্ছেন এমন একজন বলেন, মেয়েরাও এখন বের হয়ে আসছে, ৪ বছর আগে আমি মাত্র ৩ জন নারীকে নিয়ে সাইক্লিং করতে দেখেছি। আর এখন তো প্রায় একশর উপরে নারীকে চিনি যারা সাইক্লিস্ট করেন।
যানজট এড়াতে, নতুন বন্ধু তৈরি এবং ফ্যাশনেবল সাইকেলের কারণে তরুনরা সাইক্লিংয়ে বেশি আগ্রহী হচ্ছে।

সাইক্লিংয়ে আগ্রহী একজন বলেন, আমি চট্টগ্রাম থেকে হঠাৎ ঢাকায় আসি এখানে আমার পরিচিত কেই ছিলো না, শুধু ছিলো আমার সাইকেল। আমি সাইক্লিং গ্রুপগুলোকে খুঁজ নেই এবং তাদের সাথে সাইক্লিং শুরু করি। যার ফলে আমার যে একাকিত্ব ছিলো সেটা আর নেই।

ফেসবুক গ্রুপের মাধ্যমে সাপ্তাহিক ছুটির দিনে দল বেধে সাইক্লিং করে তরুণরা। গ্রুপগুলোর মাধ্যমে প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে নতুন সাইক্লিস্টদের।

সাইক্লিস্টের উদ্যোগক্তা বলেন, আমাদের অর্জন হচ্ছে আমরা কয়েক হাজার মানুষকে সাইকেল চালানো শিখিয়েছি আগে হেলমেট মাথায় দিয়ে সাইকেল চালালে মানুষ ভাবতো এলিয়েন। গাড়ি বাদ দিয়ে সাইকেল কেন চালাচ্ছি পাগল হয়ে গেছি কিনা। এই মানসিকতা এখন পাল্টে গেছে। সূত্র : বিবিসি বাংলা