প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

অন্ধকার গলি দিয়ে ক্ষমতায় যাওয়ার চেষ্টা করছে ঐক্যফ্রন্ট

নাজমা আক্তার : একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন বানচাল করে অগণতান্ত্রকিভাবে অন্ধকার চাপা গলি দিয়ে ক্ষমতায় যাওয়ার ষড়যন্ত্র করছে তথাকথিত জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। এই ঐক্যফ্রন্টের একমাত্র লক্ষ্য গণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে ভোট বন্ধ করে উল্টোপথে রাষ্ট্র ক্ষমতা দখল করা। কেননা এই নেতারা ভোট ভয় পায়, জনগণকে ভয় পায় কারণ তারা সকলে জনবিচ্ছিন্ন। সাধারণ মানুষের সাথে এদের কোনো সম্পর্ক নেই। তারা কখনোই জনগণের বিপদে-আপদে পাসে থাকে না। সেকারণেই জনগণের সংবিধান মানতে তাদের আপত্তি। শান্তিপূর্ণ গণতান্ত্রিক পথ ফেলে যেকোনো উপায়ে এই ক্ষমতালোভিরা ক্ষমতায় যেতে যায়।

গোটা জাতি দেখেছে, সব তিক্ততা ভুলে জনগণের কল্যাণে, জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সংলাপের প্রস্তাবে তাৎক্ষণিকভাবে আওয়ামী লীগ সাড়া দিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঐক্যফ্রন্ট নেতাদের সাথে সংলাপ করেছেন। আলোচনার টেবিলে প্রধানমন্ত্রী সর্বোচ্চ ছাড় দিয়ে ঐক্যফ্রন্টের ৭ দফার বেশিরভাগ দাবি মেনে নিয়েছেন। একই সাথে আলোচনার জন্য দরজা খোলা রেখেছেন। ঐক্যফ্রন্টকে বিবেচনা করতে হবে, তাদের সব দাবি মেনে নেওয়া সম্ভব নয়। তাদের কিছু দাবি আদালতের উপর নির্ভর করে। কিছু দাবি সংবিধানের পরিপন্থি।

সবার দাবি মেনেই সংবিধান অনুযায়ী একটা সুষ্ঠু নির্বাচন করতে চায় সরকার। ঐক্যফ্রন্টের মূল নেতা ড. কামাল হোসেন সংলাপ শেষে গণমাধ্যমে বলেছে সংলাপ ভাল হয়েছে। কিন্তু ঐক্যফ্রন্ট এখন ভোল বদল করেছেন। জনগণকে বিভ্রান্ত করতে একের পর এক মিথ্যাচার করে আসছেন। আসলে ঐক্যফ্রন্ট সমাধান চায় না, চায় শুধু ক্ষমতায় যেতে। কিন্তু তাদের মনে রাখতে হবে, ক্ষমতায় যেতে চাইলে সংবিধান অনুযায়ী গণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে ভোটের মাধ্যমে ক্ষমতায় যেতে হবে। পরিচিতি : সভাপতি, যুবমহিলা লীগ ও সাবেক সংসদ সদস্য/মতামত গ্রহণ : লিয়ন মীর/সম্পাদনা : ফাহিম আহমাদ বিজয়, রেআ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ