প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

আশা ও শঙ্কা নিয়ে শেষ হলো প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সংলাপ

রফিক আহমেদ : বাম গণতান্ত্রিক জোটের সমন্বয়ক সাইফুল হক বলেছেন, জাতীয় সংসদ ভেঙে দেয়া ও তদারকি সরকারসহ ৭ দফা দাবি না মানলে বাম গণতান্ত্রিক জোট রাজপথে আন্দোলন অব্যাহত রাখবে। বিদ্যমান কাঠামোতে নির্বাচন কোনমতে সম্ভব নয়। তবে, সরকারের সদিচ্ছার ওপর নির্ভর করবে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন সুষ্ঠু ও অবাধ হওয়ার বিষয়টি। মঙ্গলবার সংলাপ শেষে গণভবনে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন।

বাম জোটের সমন্বয়ক বলেন, নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার আগেই জাতীয় সংসদ ভেঙে দেওয়া, বর্তমান সরকারকে পদত্যাগ করে নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ তদারকি সরকার গঠন করা, জনগণের আস্থাহীন বর্তমান নির্বাচন কমিশন পুনর্গঠন, সংখ্যানুপাতিক প্রতিনিধিত্ব ব্যবস্থা প্রবর্তনসহ নির্বাচন ব্যবস্থার আমূল সংস্কার ও রাজনৈতিক সঙ্কট নিরসন করতে হবে।

বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল (বাসদ) সাধারণ সম্পাদক খালেকুজামান বলেন, আশা ও আশঙ্কা নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বাম গণতান্ত্রিক জোটের সংলাপ শেষ হয়েছে। সংলাপ নিছক লোক দেখানো হবে না সরকারকে সেই পদক্ষেপ নিতে হবে।
প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সংলাপে বাম গণতান্ত্রিক জোটের যেসব নেতৃবৃন্দ ছিলেন তারা হলেন- বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি- সিপিবি’র সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম, সাধারণ সম্পাদক শাহ আলম এবং বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল- বাসদ সাধারণ সম্পাদক খালেকুজ্জামান, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য বজলুর রশীদ ফিরোজ এবং বাম গণতান্ত্রিক জোটের সমন্বয়ক ও বাংলাদেশের বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক, পার্টির পলিটব্যুরোর সদস্য আকবর খান এবং বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল (মার্কসবাদী’র) কেন্দ্রীয় পরিচালনা কমিটির সদস্য শুভ্রাংশু চক্রবর্তী ও আলমগীর হোসেন দুলাল, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক জুনায়েদ সাকি ও রাজনৈতিক পরিষদের সদস্য ফিরোজ আহমেদ, বাংলাদেশের ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগের সাধারণ সম্পাদক মোশাররফ হোসেন নান্নু ও সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য অধ্যাপক আবদুস সাত্তার, গণতান্ত্রিক বিপ্লবী পার্টির সাধারণ সম্পাদক মোশরেফা মিশু ও কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য মোমিনুর রহমান বিশাল এবং বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক আন্দোলনের আহবায়ক হামিদুল হক ও কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য রনজিৎ কুমার।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ