প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

খালেদা জিয়ার ব্যাজ লাগিয়ে ‘চাঁদাবাজি’

অনলাইন ডেস্ক : রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আজ (মঙ্গলবার) জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। সেখানে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার ব্যাজ লাগিয়ে চলছে ‘চাঁদাবাজি’।

একটি ব্যাজ লাগিয়ে সালামি হিসেবে ৫০ থেকে ১০০ টাকা দাবি করছেন। কেউ দিতে রাজি না হলে তাদের হেনস্তা করে ব্যাজ খুলে নেয়া হচ্ছে।

ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের ভিতর ও বাইরে তিন-চারজনের গ্রুপ হয়ে কিছু তরুণ-যুবককে এই চাঁদাবাজি করতে দেখা গেছে। তারা নিজেদের ছাত্রদলসহ বিএনপির বিভিন্ন অঙ্গ সংগঠনের কর্মী দাবি করছেন।

মৎস্য ভবনের দিক দিয়ে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ঢুকতেই চোখে পড়ে দুই যুবক সমাবেশে আসা নেতাকর্মীদের ব্যাজ লাগিয়ে দিচ্ছেন। এরপর আস্তে করে সালাম দিয়ে সম্মানি চাইলেন। চক্ষুলজ্জায় লোকটি ২০ টাকা দিলেন। কিন্তু যুবকরা তা নিতে চাইলেন না। কমপক্ষে ১০০ টাকা দাবি করেন। লোকটি তাতে রাজি না হওয়ায় তার পোশাকে লাগানো ব্যাজ খুলে নেয় যুবকরা।

এরকম ব্যাজ লাগিয়ে টাকা আদায় করছিল সুমন ও আরিফ নামে দুই যুবক। আরিফ নিজেকে বাংলা কলেজের ছাত্র ও আদাবর ছাত্রদলের কর্মী বলে দাবি করেন। আর সুমন নিজেকে ঢাকা কলেজ ছাত্রদল কর্মী দাবি করেন।

ব্যাজ লাগানোর কারণ জানতে চাইলে আরিফ বলেন, আমরা স্বেচ্ছায় ব্যাজ লাগাচ্ছি। এগুলো বানাতে আমাদের কিছু টাকা খরচ হয়েছে, এজন্য অামরা সম্মানি চাচ্ছি।

তাহলে অনেকের ব্যাজ খুলে নিচ্ছেন কেন? জানতে চাইলে ক্ষিপ্ত হয়ে আরিফ বলেন, ‘আপনার সমস্যা কি? সম্মানি না দেয়ায় ব্যাজ খুলেছি’। এভাবে ব্যাজ লাগিয়ে টাকা আদায় করা ঠিক হচ্ছে কি-না জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমরা চাঁদাবাজি করছি তাতে আপনার কোনো সমস্যা আছে। আপনি আপনার কাজ করেন’।

এদিকে মোস্তাফা নামে এক বিএনপি কর্মী বলেন, নেত্রীর ব্যাজ লাগিয়ে দিচ্ছে ভালো কথা। টাকা আদায় করছে কেন? আর এটি যদি সম্মানি হয়ে থাকে তাহলে যে যা দিবে তাই নেবে। কিন্তু তারা জোর-জবরদস্তি করে টাকা আদায় করছে। তারা নেত্রীর নাম বলে চাঁদাবাজি করছে। এটি ঠিক হচ্ছে না। দলের নীতিনির্ধারকদের এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেয়া উচিত। জাগোনিউজ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ