প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

খালেদাকে বন্দি রেখে গণতন্ত্র চলতে পারে না: ড. কামাল

সাব্বির আহমেদ: বক্তব্যের শুরুতেই খালেদা জিয়ার মুক্তি চেয়ে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের অন্যতম শীর্ষ নেতা ড. কামাল হোসেন বলেছেন আমি খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবি করি। বিরোধী দলের নেত্রীকে শ্রদ্ধা না জানালে গণতন্ত্র চলতে পারে না।

মঙ্গলবার বিকেলে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট আয়োজিত সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন। দুপুর দুইটায় পবিত্র কোরআন থেকে তেলওয়াত ও গীতা পাঠের মধ্য দিয়ে ওই জনসভা শুরু হয়। সভায় মির্জা ফখরুল ইসলামের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ড. কামাল হোসেন। প্রধান বক্তা আ স ম আবদুর রব।

কামাল হোসেন বলেন, সকল দলের সঙ্গে আলোচনা করে গ্রহণযোগ্য নির্বাচন দিতে হবে। সুষ্ঠু নির্বাচন না হলে স্বাধীনতা অর্থহীন হয়ে পড়বে। আপোষহীনভাবে আন্দোলন চালিয়ে যেতে হবে। সরকারের কোনও কথার মূল্য থাকে না। ২০১৪ সালের নির্বাচনের পর তারা বলেছিল, আরেকটি মধ্যবর্তী নির্বাচন হবে। কিন্তু ৫ বছর পার হয়ে গেলেও তা আর হলো না। সংবিধানের ১৬ আনা উপেক্ষা করে ক্ষমতার অপব্যবহার করা হচ্ছে। রাস্তা, বাস বন্ধ করে জনগণকে উপেক্ষা করে নির্বাচন করা যাবে না। জনগণই রাষ্ট্রের মালিক। মালিক হিসেবে আমরা ঐক্যবদ্ধ থাকব। ঐক্যবদ্ধ থাকলে জনগণের রাষ্ট্র জনগণের কাছে ফিরে আসবে।

তিনি বলেন, এ দেশে যা হচ্ছে তা মেনে নেওয়া যায় না। দেশে আইনের শাসন অনুপস্থিত। যাকে তাকে ধরে নেওয়া হচ্ছে। এ দেশের মালিক জনগণ। আইনে যা প্রাপ্য তা হওয়ার কথা। সমান আইন হতে হবে। সরকার ও বিরোধী দলের সমান সুযোগ থাকতে হবে। বিরোধী দলের নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করা যাবে না। এসব বন্ধ করতে হবে। স্বাধীন দেশে এসব চলতে পারে না। নির্বাচিত সরকার এসব করতে পারে না। আর অনির্বাচিত সরকার এসব করলে হবে মহাঅপরাধ। একদিন এর জবাব দিতে হবে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ