প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

চলছে মঞ্চ তৈরির কাজ, আকাঙ্ক্ষা গণজাগরণ!

শিমুল মাহমুদ : সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশের জন্য চলছে মঞ্চ তৈরির কাজ। আগামীকাল জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সমাবেশ। তাই রাতেই প্রায় সব প্রস্ততি শেষ করেছে ঐক্যফ্রন্ট। তাই এখন চলছে জনসভাস্থলে মঞ্চ তৈরির কাজ। আগামীকালের এই সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থাকবেন ঐক্যফ্রন্টের অন্যতম নেতা ও গণফোরামের সভাপতি ড.কামাল হোসেন। বেলা ২টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত চলবে এই জনসভা ।

এর আগে আজ দুপুরে পরিদর্শন করেন বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও ডাকসুর সাবেক ভিপি আমান উল্লাহ আমান, উপদেষ্টা আব্দুস সালাম, প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবদুস সালাম আজাদ। এসময় বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমান উল্লাহ আমান বলেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সমাবেশে স্মরণকালের সর্ববৃহৎ জনসমাবেশ হবে বলে প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন।

তিনি বলেন, আমাদের এই সমাবেশ আয়োজন করতে খুবই অল্প সময় পেয়েছি। কিন্তু তারপরেও জনগণের যে আকাঙ্ক্ষা, গণজাগরণ, সেই গণজাগরণের মধ্য দিয়ে ইদানিংকালের সর্ববৃহৎ একটি সমাবেশ হবে। জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের দেয়া যে ৭ দফা দাবি, সেই দাবি সামনে রেখে জনগণ তাদের প্রত্যাশা পূরণের লক্ষ্যেই কালকের সমাবেশে উপস্থিত হবে। এই ৭ দফা যে জনগণের দাবি, জাতির দাবি, সেটা তারা তাদের উপস্থিতির মধ্য দিয়ে প্রমাণ করবে।’

৭ নভেম্বর প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের দ্বিতীয় দফায় যে সংলাপ হবে, এই সমাবেশ তার ওপর কোনো প্রভাব ফেলবে কি না? এমন প্রশ্নের জবাবে ডাকসুর সাবেক এই ভিপি বলেন, ‘সংলাপ এবং মঙ্গলবার সমাবেশ একে অপরের পরিপূরক। আমরা আশা করি ৭ নভেম্বর সংলাপের মধ্য দিয়ে জনগণের দাবি পূরণ হবে। সুষ্ঠু নির্বাচনের মাধ্যমে, জনগণ ভোট দিয়ে তাদের প্রত্যাশা পূরণ করবে। যদি এই দাবিগুলো পূরণ না করা হয়, তাহলে অবশ্যই আন্দোলনের মধ্য দিয়ে সে দাবি আদায় করা হবে।’

মঞ্চ তৈরির সঙ্গে জড়িত একজন বলেন, ‘আমরা সোমবার বিকাল থেকে মঞ্চ তৈরির কাজ শুরু করি। এর মধ্যে বিএনপির নেতারা অনেকে এসেছেন। রাতেই মঞ্চ তৈরি হয়ে যাবে। তবে কিছু কাজ আগামীকাল সকালে করা হবে। ১৮ফুট র্দৈঘ্য ৪০ফুট প্রস্থ মঞ্চ তৈরির জন্য ডেকোরেশনের টেবিল আনা হয়েছে। এসব টেবিল সারিবদ্ধভাবে রেখে তার ওপর তৈরি করা হবে জনসভার মঞ্চ, যেখানে নেতারা বসবেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত