Skip to main content

চিড়িয়াখানা আধুনিকায়নে ৩৪ কোটি টাকা খরচ করবে সরকার

তরিকুল ইসলাম সুমন : ঢাকা ও রংপুর চিড়িয়াখানা আধুনিকায়নের জন্য 'মাস্টার প্লান স্ট্রাকচারাল ডিজাইন’ প্রণয়নসহ ৩৪ কোটি টাকার একটি প্রকল্প হাতে নেয়া হয়েছে। এটি বাস্তবায়িত হলে বর্তমানে বিরাজমান বিভিন্ন সমস্যাসহ জনদুর্ভোগ কমার হবার পাশাপাশি জাতীয় চিড়িয়াখানাটি বিশ্বে অত্যাধুনিক চিড়িয়াখানার কাতারে নাম লেখাতে সক্ষম হবে বলে জানিয়েছেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী নারায়ন চন্দ্র চন্দ। সম্প্রতি জাতীয় চিড়িয়াখানার উপদেষ্টা কমিটির সভায় এ তথ্য জানান তিনি। বৈঠক সূত্র জানায়, চিড়িয়াখানার সৌন্দর্য ও পরিবেশরক্ষার স্বার্থে চিড়িয়াখানার পরিবেশের ওপর বিরূপ প্রভাবের কারণে লেকে টিকেট কেটে বড়শিতে মাছ মারা বন্ধ অথবা সীমিত করার ও উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। ঢাকা চিড়িয়াখানা সূত্র জানায়, উন্নয়নে ভবিষ্যত পরিকল্পনা, সার্বিক উন্নয়নসহ গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার ২০১৪ সালে গঠিত উপদেষ্টা কমিটি করা হয়। পরে এই কমিটি পূনর্গঠন করে ৩২-সদস্যবিশিষ্ট করা হয়। বছরে দুটি বৈঠক করার কথা থাকলেও নিয়মিতভাবে এটি করা সম্ভব হয় না। সম্প্রতি অনুষ্ঠিত হওয়া এ সভায় চিড়িয়াখানার বাইরের গাড়ি-পার্কিংয়ের ফি বাড়ানো, রিক্সা, ভ্যান বা-সাইকেলের পার্কিং-পদ্ধতি বাতিল, ছাড়াও ১১৫টি কার ও ১০টি মিনিবাসের সংকুলানসম্পন্ন একটি বর্ধিত বহিঃপার্কিং নির্মাণেরও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। মন্ত্রী চিড়িয়াখানার বিনোদনধর্মী উদ্দেশ্য ও লক্ষ্য অর্জনের জন্য সংগতিপূর্ণ প্রকল্প গ্রহণ ওবাস্তবায়নের দিকে নজর দেওয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদেও আহ্বান জানান। অত্যাধুনিক চিড়িয়াখানার স্বার্থে সংশ্লিষ্ট অভিজ্ঞতাসম্পন্ন কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বদলিপদ্ধতি বাতিলসহ তাদের বিভিন্ন দেশের উন্নত চিড়িয়াখানা পরিদর্শন মাধ্যমে অভিজ্ঞতার্জনের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের তাগিদ দেওয়া হয়েছে।