প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বগুড়ায় চীফ জুডিশিয়াল আদালত ভবন থেকে পড়ে মুহরীর মৃত্যু

আরএইচ রফিক, বগুড়া : বগুড়ার ১০তলা চীফ জুডিশিয়াল আদালত ভবনে উঠার সময় পড়ে গিয়ে আবুল কাশেম(৫০) নামের এক আইনজীবি সহকারী (মুহরী)’র মৃত্যু হয়েছে । ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার দুপুরে । নিহত আবুল কাশেম শেরপুর উপজেলার নলবাড়ীয়া গ্রামের বাসিন্দা মৃত আবেদ আলীর পুত্র ।

জানা গেছে , সোমবার দুপুরে আনুমানিক আড়াইটার দিকে মুহরী আবুল কাশেম কাগজ পত্র নিয়ে বগুড়ার নব নির্মিত ১০তলা সুউচ্চ চীফ জুডিশিয়াল আদালত ভবনে ৯বম তলায় সিড়ি বেয়ে উঠছিলেন । এসময় ষ্টোক (হৃদরোগে )আক্রান্ত হলে তিনি ১০ম তলায় পড়ে যান । এতে করে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয় ।

এ বিষয়ে লাশের সুরতহাল তৈরীকারী বগুড়া সদর থানার এসআই মুহা জিল্লার এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি ঘটনা নিশ্চিৎ করে বলেন,নিহতের লাশ গতকালই তার পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। অভিযোগ রয়েছে, নব নির্মিত বগুড়ার ১০তলা চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতের আরোহন ব্যাবস্থায় মারাত্বক ক্রটি পরিলক্ষিত হচ্ছে। অন্যান্য বিষয় উল্লেখ না করে শুধু ভবনের লিফ্ট এর বিষয়ে রয়েছে গুরুত্বর অভিযোগ।

লিফট সংযোজন ব্যবস্থায় নির্মানকারী ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের পক্ষে সেচ্ছাচারিতা ও অবহেলার কারনে ভবনের লিফ্ট ফিটিংএর ক্ষেত্রে দারুন গাফলতির অভিযোগ শুরু থেকেই । কারন এ ভবনের সংযোজিত ফিপট গুলি এতই নি¤œ মানের যার বর্ননা করা কিছুটা কঠিন। কম দামী এবং অতি নিম্ন মানের হবার কারনে লিফট গুলি মাত্র কয়েক দিনের ব্যবধানে বার বার অকেজো হয়ে পড়ছে । ফলে একটি লিফট চালু রেখে কোন ভাবে সময় ক্ষেপন করছে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানে ।

খোঁজ খবর নিয়ে জানা গেছে , লিফট অকেজা থাকার কারনে ভবনে উঠার ক্ষেত্রে প্রবীন আইনজীবী সাধারন মানুষ এমনকি বিচারকদের ক্ষেত্রের বার বার বিরম্বনার শিকার হতে হচ্ছে। আবার লিফটে উঠার সুযোগ না পাওয়ায় প্রায়ই বয়স্ক মানুষদের অনেকে শিড়ি ডিঙ্গিয়ে ওই ১০তলা ভবনে ওঠার কারনে অশুস্থ হয়ে পড়ছেন।

এব্যপারে বগুড়া বারের অসংখ্য আইনজীবিগন তাদের তিক্ত অভিঙ্গতা জানিয়ে বলেছেন ,এব্যপারে দেখার কেউ যেন নেই । এদিকে যান ফলশ্রুতিতে একজন আইনজীবী সহকারী মৃত্যুর কোলে ঢোলে পড়লো ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ