প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সংলাপ হলো চলমান প্রক্রিয়া

এনাম আহমেদ চৌধুরী : ৭ নভেম্বরের পরে আর সংলাপ করা যাবে না, এটিকে আমার কাছে কিছুটা নেতিবাচক মনে হচ্ছে। সংলাপ তো আসলে চলমান প্রক্রিয়া, এটি আসলে চলার কথা। এবং সংলাপের একটি উপযোগী আবহ থাকতে হবে। সংলাপের প্রধান বৈশিষ্ট্য হচ্ছে, পরস্পরের মধ্যে বিশ্বাস এবং সহযোগিতার ইচ্ছে। সমস্যা সমাধানের জন্য এটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

৭ তারিখের পরে আর একেবারেই আর সংলাপ হবে না, একেবারে যবনিকা টেনে দেয়াটা, এটি আসলে জাতির যে আশা-আকাক্সক্ষা আছে, এটির মোটেই অনুকূলে নয়।

ঐক্যফ্রন্ট থেকে অনুরোধ করা হয়েছে, সংলাপের ফলাফল সম্পর্ক নিশ্চিত হওয়ার আগ পর্যন্ত সিডিউল ঘোষণা না করার জন্য। সিডিউল ঘোষণা বা তফসিল ঘোষণাটা পরে হয়। এই আলোচনার পরে যেন হয়, এই জন্য অনুরোধ জানানো হয়েছিলো। বিএনপি এবং জাতি আশা করছে, প্রথমে আস্থাসূচক সমাধান হবে, তার পরে সিডিউল ঘোষণা করা হবে।

আমি আশা করবো, সংলাপের যে আবহ এবং আগ্রহ, এটি সবসময় বজায় থাকবে। আমরা সবসময় একটি সংলাপমুখর রাজনীতি চাই, হাতাহাতি বা মারামারি রাজনীতি নয়, সংঘাতের রাজনীতি নয়।

সংলাপের পাশাপাশি কেউ যদি নাশকতার চেষ্টা করে, তাহলে বিএনপিও প্রতিহত করবে। আমার মনে হয়, নাশকতার ব্যপারে বিএনপি, আওয়ামী লীগসহ সকল দলই নাশকতার বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ হয়ে দাঁড়াবে। কিন্তু নির্বাচনের যে প্রস্তুতি এটিকে প্রতিহত করা মোটেই উচিত হবে না। নির্বাচন প্রস্তুতি আছে, সভা-সমিতি আছে, শোভাযাত্রা আছে এবং বাড়ি বাড়ি ঘোরাফেরা করা, এগুলো রয়েছে নির্বাচন প্রক্রিয়ায়। এগুলোকে নাশকতা বলে চালিয়ে দেয়া মোটেই উচিত হবে না। মুক্তিযুদ্ধের আসল চেতনা হলো, প্রকৃত একটি গণতান্ত্রিক নির্বাচনের একটি আবহ তৈরি করা।

পরিচিতি : ভাইস চেয়াম্যান, বিএনপি/সাক্ষাৎকার গ্রহণ : ফাহিম আহমাদ বিজয়/সম্পাদনা : রেআ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ